Breaking News

দিঘায় হোটেল মালিকের অস্বাভাবিক মৃত্যুতে চাঞ্চল্য

Post Views: website counter

 

হাওড়ার শিবপুরের বাসিন্দা সুব্রত সরকার ।এই ব্যাক্তি নতুন দিঘার একটি হোটেলএর মালিক। সেই হোটেলের সুব্রত সরকারে ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য এলাকায়।

জানা গেছে হাওড়া শিবপুর থানার এই বাসিন্দা দীর্ঘদিন ধরে সৈকত শহরে হোটেল ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত।

জানা গেছে শনিবার সকালে কর্মীরা হোটেল মালিক সুব্রত বাবুকে ঘুম থেকে ডাকতে যান। বারবার ডাকাডাকি করা সত্বেও দরজা না খোলায় সন্দেহ হয় কর্মীদের। তাঁরা সঙ্গে সঙ্গেই খবর দেয় পুলিশকে। পুলিশ সেখানে এসে ডাকাডাকি করলেও দরজা খোলেন নি সুব্রতবাবু। তারপরই বাধ্য হয়ে পুলিশ দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে। ভেতরে ঢুকতেই চমকে যান তাঁরা। দেখেন, গলায় দড়ির ফাঁস লাগানো অবস্থায় বিছানায় পড়ে রয়েছেন হোটেল মালিক। তাঁর মুখে বালিশ চাপা ছিল। পুলিশ দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠায়।

এই হোটেল এর কর্মী নির্মল ঘড়াইর থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযাই গতকাল রাত্রি এগারোটা নাগাদ খাওয়া-দাওয়ার পর নিজের রুমে ঘুমিয়ে যান সুব্রত বাবু। তারপর আজ শনিবার সকালে পাঁচটা নাগাদ মালিককে ডাকতে গেলে তিনি ওঠেন নি ।পার্শ্ববর্তী হোটেলের কর্মীরা এসেও ডাকাডাকি করে,কিন্তু তিনি ওঠেন নি ।এর পরেই পুলিশে খবর দেওয়া হয় ।এই কর্মী জানিয়েছেন পুলিশ রুমের ভেতরে ঢুকে দেখে বিছানা লন্ডভন্ড অবস্থায় আছে ।

আর তার মধ্যেই বালিশ চাপা, গলায় দড়ি দিয়ে খাটে পড়ে আছেন সুব্রত বাবু। এরপরেই দিঘা থানার পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়। কি ভাবে এই মৃত্যু তা তদন্ত করতে ঘটনাস্থলে ছুটে যান পুলিশের কন্টাই সার্কেল ইন্সপেক্টর।উল্লেখ্য মারন ভাইরাস করোনার প্রকোপের জেরে গত বছর থেকেই পর্যটন শিল্পে আঘাত লেগেছে।দিঘার হোটেল ব্যাবসায়ীরা সমস্যায় পড়েছেন।তার মধ্যে এই খুন নতুন করে বিড়াম্বনা বাড়ালো

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *