Breaking News

দিঘা শংকরপুর উন্নয়ন পর্ষদের চেয়ারম্যান জ্যোতির্ময় কর

Post Views: website counter

 

দিঘা শংকরপুর উন্নয়ন পর্ষদের চেয়ারম্যান নিযুক্ত হলেন রাজ্যের প্রাক্তন সমবায় মন্ত্রী জ্যোতির্ময় কর ।বৃহস্পতিবার রাজ্যের নগর ও পুর উন্নয়ন দফতর জ্যোতির্ময় করকে এই পদে নিযুক্ত করেন ।

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কংগ্রেস ছেড়ে তৃনমূল গঠনের পর থেকেই তাঁর দলে যোগ দেন অধ্যাপক জ্যোতির্ময় কর । গত ২০০১ সালে তিনি তৃনমূলের টিকিটে উত্তর কাঁথি বিধানসভা কেন্দ্রে বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছিলেন। ২০১১ সালে দল তাঁকে পটাশপুরে প্রার্থী করে ।এই কেন্দ্র থেকে তিনি ২০১৬ সালেও তৃনমূলের টিকিটে জয়ী হয়েছিলেন। নিজের দ্বিতীয় মন্ত্রী সভায় তাঁকে সমবায় মন্ত্রী করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এবার দল তাঁকে দক্ষিন কাঁথি বিধানসভা আসনে প্রার্থী করে । ভোট ঘোষনার পর মাত্র ১০-১২ দিন সময় পেয়েছিলেন।কড়া লড়াই দিলেও পরাজিত হন ।তবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অভিজ্ঞ এই মানুষটিকে তাঁর উন্নয়নি কর্মকান্ডে সামিল রাখতে চান ।তাই দিঘা শংকরপুর উন্নয়ন পর্ষদের চেয়ারম্যান পদে তাঁকে নিযুক্ত করলেন বলে মনে করছে দলীয় নেতৃত্ব।

উল্লেখ্য বিগত কয়েক বছর ধরে পর্ষদের চেয়ারম্যান ছিলেন তৃনমূল ত্যাগী বিজেপি নেতা কাঁথির সাংসদ শিশির অধিকারী ।গত বছর ১৯ ডিসেম্বর শিশির বাবুর মেজ ছেলে রাজ্যের প্রাক্তন পরিবহন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিতে যোগ দানের পরে পর্ষদের চেয়ারম্যানের পদ থেকে সরিয়ে অখিল গিরিকে চেয়ারম্যান করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।অখিল বাবু বর্তমানে রাজ্যের মৎস্য মন্ত্রী।এবার জ্যোতির্ময় করকে চেয়ারম্যান করলেন মমতা।

দিঘা শংকরপুর উন্নয়ন পর্ষদের নব নিযুক্ত চেয়ারম্যান জ্যোতির্ময় কর বলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমার উপর আস্থা রেখেছেন।আমি চেষ্টা করবো সেই আস্থা বজায় রাখার।নেত্রীর নির্দেশ মত সকলকে নিয়ে দিঘাকে পর্যটকদের কাছে আকর্ষনিয় করে তোলার চেষ্টা করবো।

এই বিষয়ে অখিল গিরি বলেন, “গতকাল (বৃহস্পতিবার) আমাকে জানানো হয়, ওই পথ থেকে সরিয়ে জ্যোতির্ময় করকে বসানো হচ্ছে। কারণ, রাজ্যের মন্ত্রী হওয়ার কারণে দিঘা শঙ্করপুর উন্নয়ন পরিষদের কাজে সময় দিতে পারব না আমি। এই সিদ্ধান্তে আমি খুশি।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *