Breaking News

কাঁথিতে কোভিড সচেতনতা যাত্রায় পা মেলালেন মৎস্য মন্ত্রী অখিল গিরি

Post Views: website counter

 

সারা দেশের সাথে পশ্চিমবঙ্গ জুড়েও করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের পরিপ্রেক্ষিতে সংক্রমণ বাড়ছে। সংক্রমন রোধে রবিবার থেকে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কোভিড বিধিনিষেধ নিয়ে সচেতনতা যাত্রা হল পূর্ব মেদিনীপুর জেলার কাঁথিতে। কাঁথি মহকুমা প্রশাসন ও পৌরসভার যৌথ উদ্যোগে পৌর এলাকার ক্যানেলপাড়ে সচেতনতা যাত্রার সূচনা হয়।

এই কোভিড সচেতনতা যাত্রায় সহযোগিতা করে লায়ন্স ক্লাব অফ কন্টাই,রোটারী ক্লাব অফ কন্টাই, কাঁথি মহকুমা রেডক্রস সোসাইটি, কন্টাই হাউস ওনার্স অ্যাসোসিয়েশান,কাঁথি রঘুনাথ আয়ুর্বেদ মহাবিদ্যালয়, কাঁথি পৌরসভার চিকিৎসা কেন্দ্র সহ বিভিন্ন সমাজসেবী প্রতিষ্ঠান। কোভিড সচেতনতা যাত্রায় নেতৃত্ব দেন রাজ্য সরকারের মৎস্য মন্ত্রী অখিল গিরি, কাঁথির মহকুমা শাসক আদিত্য বিক্রম মোহন হিরানী,পৌর প্রশাসকমন্ডলী র চেয়ারপার্সন সিদ্ধার্থ মাইতি, পৌর প্রশাসকমন্ডলীর সদস্য মামুদ হোসেন, সুবল মান্না, ডাঃ অনুতোষ পট্টনায়ক, কাঁথি থানার আইসি অমলেন্দু বিশ্বাস, মহিলা থানার ওসি অনুস্কা মাইতি, লায়ন সুস্মিত মিশ্র,রোটারিয়ান স্বপন মাইতি প্রমুখ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।

কোভিড সচেতনতা যাত্রা সিএসএসএ ময়দান থেকে ঘুরে নেতাজী মার্কেট হয়ে ক্যানেলপাড় বস্তী এলাকা পরিক্রমা করে শ্রীরূপা রাস্তার মোড়ে শেষ হয়।মৎস্য মন্ত্রী অখিল গিরি বিনা মাস্কের পথচলতি মানুষ জন ও দোকানের ক্রেতা- বিক্রেতাকে মাস্ক পরিয়ে দেন।মহকুমা শাসক কোভিড সংক্রমণ নিয়ে সকলকে সচেতন করেন।

পরে কাঁথি ক্যানেলপাড় স্ট্যান্ডে সচেতনতা সভায় সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন মৎস্য মন্ত্রী অখিল গিরি, মহকুমা শাসক আদিত্য বিক্রম মোহন হিরানী, পৌর চেয়ারপারসন সিদ্ধার্থ মাইতি, প্রশাসকমন্ডলীর সদস্য মামুদ হোসেন প্রমুখ।

মৎস্য মন্ত্রী অখিল গিরি তাঁর বক্তব্যে কাঁথির মানুষ জনকে কোভিড বিধি মেনে চলার পাশাপাশি সংক্রমণ রোধে শারিরীক দূরত্ব বিধি মেনে চলা,মাস্ক ব্যবহার করা,শারিরীক দূরত্ব বিধি মেনে চলা ও অকারণে ঘরের বাহিরে না বেরানোর পরামর্শ দেন।

মহকুমা শাসক কোভিড বিধিনিষেধ অমান্য করলে মহামারী আইনে ব্যবস্হা নেওয়ার কথা বলেন।

পৌর চেয়াপারসন সিদ্ধার্থ মাইতি জানান কাঁথি শহরে সক্রিয় করোনা সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা ৫৯৭ জন।পরীক্ষায় আরো কোভিড রোগী চিহ্নিত করন সময়ের অপেক্ষা মাত্র।

মামুদ হোসেন বলেন অপরকে বাঁচাতে নিজেকে কোভিড সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে হবে।হাসপাতালে কোভিড বেড প্রায় পরিপূর্ণ। সেফ হোমে ঠাঁই নাই রব।কোভিড আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা পরিষেবা পাওয়ার সুযোগ পাওয়া প্রায় দুষ্কর। কোভিড সংক্রমণ থেকে রক্ষা পাওয়াই বেঁচে থাকার পথ বলে অভিমত প্রকাশ করেন মামুদ হোসেন। আগামীদিনে কাঁথি শহরের বিভিন্ন জনবহুল এলাকায় একই রকমভাবে প্রশাসনিক স্তরে কোভিড সচেতনতা যাত্রা আয়োজনের কথা ঘোষণা করেন মহকুমা শাসক ও পৌরসভার প্রশাসকমন্ডলী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *