Breaking News

তৃনমূলী সন্ত্রাসে মৃত্যু দলীয় কর্মীরঃপরিবারের পাশে থাকার আশ্বাস শুভেন্দুর

Post Views: website counter

থমথমে নন্দীগ্রাম।

রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের দিন ঘোষনার আগে থেকেই সংবাদের শিরোনামে উঠে এসেছিলো জমি রক্ষার আন্দোলনের অন্যতম প্রধান মুখ।ভোটের ফল প্রকাশের পরেও হিংসার অভিযোগে বারবার সংবাদে স্থান করে নিয়েছে নন্দীগ্রাম। এই অবস্থায় এবার আরও এক বিজেপি কর্মীর মৃত্যুর ঘটনা ঘটলো। রাজনৈতিক হিংসার শিকার হয়ে এই দলীয় কর্মীর অকাল প্রয়ানে শোকাহত এলাকার বিধায়ক রাজ্য বিধানসভার দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।

জানা গেছে গত কয়েকদিন ধরে চিকিৎসাধীন থাকার পর বৃহস্পতিবার মৃত্যু হয় দেবব্রত মাইতি নামে ওই বিজেপি কর্মীর।এই খবর এলাকায় আসতেই শোকের ছায়া নেমে আসে ।বাড়তে থাকে রাজনৈতিক উত্তেজনা।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন কলকাতা থেকে বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে নন্দীগ্রামে পৌঁছয় দেবব্রত মাইতির দেহ। পথেই তাঁকে মাল্যদান করে সম্মান জানান নন্দীগ্রামের বিজেপি বিধায়ক তথা বিধানসভার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। তিনি বলেন, ‘একজন সহযোদ্ধাকে হারালাম।’ ওনার পরিবারের প্রতি পূর্ণ সহযোগিতার আশ্বাসও দেন বিধায়ক।
গত ৩ মে অর্থাৎ বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের পরের দিন ভোট পরবর্তী সন্ত্রাসের ঘটনায় আক্রান্ত হন নন্দীগ্রামের চিল্লগ্রামের বাসিন্দা ৪৯ বছর বয়সী দেবব্রত মাইতি।

অভিযোগ, দুষ্কৃতীদেরদের আক্রমন ও ব‍্যাপক মারধরে গুরুতর আহত হন তিনি। তাঁর ঘরবাড়িও ভেঙে দেওয়া হয়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে প্রথমে নন্দীগ্রাম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ও পরে তমলুক জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।  অবস্থার আরও অবনতি হলে তাঁকে এসএসকেএমে ভর্তি করা হয়। বৃহস্পতিবার হাসপাতালেই মৃত্যু হয় তাঁর। গভীর রাতে নন্দীগ্রামের বাড়িতে দেহ পৌঁছালে কান্নায় ভেঙে পড়েন পরিবার পরিজন থেকে সহকর্মীরা।

বিজেপির তমলুক সাংগঠনিক জেলার সহ সভাপতি প্রলয় পাল অভিযোগ করে বলেন তৃনমূল নন্দীগ্রাম জুড়ে সন্ত্রাস করে চলেছে।দেবব্রত মাইতির অকাল প্রয়ান সেই সত্যটাকে আবারো প্রমান করে দিলো

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *