Breaking News

বন্দরে সচেতনতা প্রচার ও করা হল স্যানিটাইজ

Post Views: website counter

বন্দরে সচেতন প্রচার ও করা হল স্যানিটাইজ

পূর্ব মেদিনীপুর জেলার হলদিয়া একই সাথে শিল্প নগরি ও বন্দরনগরিও । করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ওঠার পর পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় এখনও অবধি ১৯-২০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

করোনা সংক্রমনের প্রকোপ বাড়তেই প্রশাসন ইতিমধ্যে নড়েচড়ে বসেছে। সাধারন মানুষকে মাক্স ও স্যানিটাইজার ব্যাবহার করার জন্য সচেতনতার প্রচার অভিযান চালাছে। জেলার প্রতিটি পৌরসভার পক্ষ নিজেদের বাসিন্দাদের বিভিন্ন এলাকায় মাক্স বাধ্যতামূলক করেছেন। অকারণে বাড়ির বাহিরে না হওয়ার জন্য আবেদন করছেন।

হলদিয়াতে ইতিমধ্যে কয়েক জন মারা গেছেন। কোভিড ১৯ আক্রান্ত হয়ে দিন দিন বাড়ছে। করোনা পজিটিভ সংখ্যা বাড়ছে মানুষ আতঙ্কিত। ইতিমধ্যে হলদিয়া বন্দরের কয়েকজন আক্রান্ত হয়েছেন এবং বন্দরের আবাসিক টাউনশিপে এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। ওই এলাকায় মানুষ আতঙ্কিত হয়ে রয়েছে।গত বছরেও হলদিয়া বন্দরের এক কর্মচারী করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছিলো।

স্বাভাবিক কারনে সেই সময়ে আতঙ্কে বন্দরের কাজকর্ম বন্ধ ছিল এক সপ্তাহ। সেজন্যই এবার ফের করোনা সংক্রমনের প্রভাব বাড়তেই হলদিয়া বন্দর কর্তৃপক্ষ সতর্কতা অবলম্বন করেছে। হলদিয়া বন্দরে ভিন রাজ্য থেকে আসা গাড়ির ড্রাইভার হেলপারদের প্রাথমিক পরীক্ষা শুরু করলো। বন্দরের প্রবেশ দ্বারে থার্মস্ক্যান করা হচ্ছে। এবং মাক্স না থাকলে বন্দরের ভিতরে প্রবেশ নিষেধ করা হয়েছে।

বন্দরে শ্রমিকদের সচেতন করতে মাইকিং করে প্রচারের সাথে সাথে স্যানিটাইজা করা হল বন্দরের কোল বার্থ সহ বিভিন্ন অফিস। এবার প্রথম থেকেই মারন ভাইরাস করোনার বিরুদ্ধে লড়াইতে নেমেছে হলদিয়া বন্দর কর্তৃপক্ষ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *