Breaking News

জল্পনা থাকলেও মোদীর সভায় গেলেন না তমলুকের তৃনমূলী সাংসদ দিব্যেন্দু

Post Views: website counter

 

জল্পনা আপাতত জিইয়েই রাখলেন ‘শান্তিকুঞ্জ’-এর সেজ অধিকারী !

বুধবার কাঁথিতে রেল স্টেশন সলগ্ন মাঠে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জনসভায় বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন তমলুকের সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী।গত কয়েক দিন ধরে জল্পনা চলছিলো কাঁথি সহ রাজ্য জুড়ে ।তবে শেষ অবধি সভায় যাননি তমলুকের সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী ।

মঙ্গলবার রাতেও সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে দিব্যেন্দু জানিয়েছিলেন, বুধ-সকালে সিদ্ধান্ত নেবেন। এদিন সকালে সংবাদ মাধ্যমের কাছে কিছু না বললেও মোদীর সভা শুরু হতেই জানা যায়, সিদ্ধান্ত নিতে পারেননি দিব্যেন্দু।

তমলুকের সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী কে নিয়ে তাঁর বাবা শিশির অধিকারীর আগে বিজেপিতে যোগদান নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছিলো। সেই জল্পনা আরো বেড়েছিলো কারণ, দিব্যেন্দু হলদিয়ায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি কর্মসূচিতে এলাকার সাংসদ হিসেবে যাওয়ার আমন্ত্রণ পেয়ে সেই অনুষ্ঠানে হাজির থাকায়।

গত ১৯ ডিসেম্বর মেদিনীপুরে অমিত শাহের সভায় বিজেপিতে যোগদান করেন রাজ্যের প্রাক্তন পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী । তারপর থেকেই তাঁর বাড়ির বাকি তিন তৃনমূলী জনপ্রতিনিধি অর্থাৎ বাবা কাঁথির সাংসদ শিশির অধিকারী,সেজো ভাই তমলুকের সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী এবং ছোট ভাই কাঁথির প্রাক্তন পৌর প্রধান সৌমেন্দু অধিকারীকে ঘিরে জল্পনা শুরু হয় ।তাঁরাও খুব তাড়াতাড়ি বিজেপিতে যোগদান করতে পারেন বলে জল্পনা ছড়ায় । এই জল্পনা সত্যি করে ছোট ভাই সৌমেন্দু অধিকারী কিছুদিন পরে কাঁথিতে বিজেপিতে যোগদান করলেও শুভেন্দুবাবুর বাবা কাঁথির সাংসদ শিশির অধিকারী এবং সেজোভাই তমলুকের সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী তৃণমূলেই থেকেছেন গত তিন মাস ধরে । এর মধ্যেই পরিস্থিতির পরিবর্তন হয়। গত ২১ তারিখ এগরায় অমিত শাহের সভায় বিজেপিতে যোগ দেন কাঁথির সাংসদ শিশির অধিকারী।পরের দিন থেকে রীতিমতো বিজেপি প্রার্থীর হয়ে প্রচার শুরু করেন শিশিরবাবু ।স্বাভাবিকভাবেই তারপর থেকে জল্পনা আরও বাড়ে দিব্যেন্দু অধিকারীর বিজেপিতে যোগদান এর সম্ভাবনাকে নিয়ে ।

বুধবার দিব্যেন্দু অধিকারী কেন মোদীর সভায় গেলেন না, তার সঠিক উত্তর এখনও মেলেনি। বিস্তর জল্পনা রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *