Breaking News

বিজেপি নন্দীগ্রাম জমি আন্দোলনে ছিলোনা,প্রমান দিলঃসেক সুফিয়ান

Post Views: website counter

 

বিজেপি কৃষক বিরোধী।এই অভিযোগ তুলে গত কয়েক মাস ধরে দিল্লীর বুকে আন্দোলন করছেন কৃষকেরা।তাঁদের সেই আন্দোলনের পাশে এবার বোধহয় জুড়তে চলেছে নন্দীগ্রাম।অন্ত্যত তেমনটাই দাবি নন্দীগ্রাম জমি রক্ষার আন্দোলনের নেতৃত্বদের !

কেমিক্যাল হাব গড়ার জন্যে ২০০৬ সালের ডিসেম্বর মাসে তৎকালীন সিপিএমের দোর্দন্ডপ্রতাপ নেতা লক্ষন শেঠের নেতৃত্বাধীন হলদিয়া উন্নয়ন পর্ষদ জমি অধিগ্রহনের নোটিশ জারি করে ।এর বিরুদ্ধেই ভূমি উচ্ছেদ প্রতিরোধ কমিটি গড়ে শুরু হয় জমি অধিগ্রহন বিরোধী আন্দোলন।গত বছরের মাঝামাঝি সময়ে নন্দীগ্রামের জমি আন্দোলনে যুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহারের কাজ শুরু করেছিল তৃনমূল পরিচালিত রাজ্য সরকার।

কেননা ক্ষমতায় আসার আগে আন্দোলনের সময় থেকেই তৃনমূল জমি রক্ষার আন্দোলনের জেরে সেই সময়ে আন্দোলনকারীদের বিরুদ্ধে সিপিএম সরকারের করা মামলা প্রত্যাহারের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল তৃণমূল।ফলে চার্জশিট জমা হয়ে গেলেও অভিযোগ প্রত্যাহারে সরকারি আইনজীবীরা আপত্তি না করার মামলাগুলি প্রত্যাহারের পথে চলে যায়।

প্রতিশ্রুতি রাখায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ধন্যবাদও জানান তৎকালীন রাজ্যের পরিবহন মন্ত্রী ও নন্দীগ্রাম জমি রক্ষা আন্দোলনের প্রধান নেতৃত্ব বর্তমানে এই কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারী। যদিও রাজ্য সরকারের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়। সেই মামলাটি করেছিলেন বিজেপি নেতা তথা নন্দকুমার বিধানসভার বিজেপি প্রার্থী নীলাঞ্জন অধিকারী।

এদিকে দিল্লীর কৃষক আন্দোলনের নেতারা দুই দিন আগে নন্দীগ্রামে এসে বলেছিলো বিজেপি কৃষক বিরোধী। এখিন বিজেপির রাজ্য কমিটির নেতা তথা নন্দকুমারের বিজেপি প্রার্থী নীলাঞ্জন অধিকারীর আবেদনের ভিত্তিতে নন্দীগ্রাম জমি রক্ষার আন্দোলনে জড়িত তৃনমূল নেতাদের গ্রেফতারের সম্ভাবনা তৈরী হওয়ায় দিল্লীতে চলা কৃষক আন্দোলনের নেতৃত্বদের অভিযোগে সততার সীল মোহর লাগালেন নন্দীগ্রাম আন্দোলনের অন্যতম নেতৃত্ব সেক সুফিয়ান।

নন্দকুমার বিধানসভার বিজেপি প্রার্থী নীলাঞ্জন অধিকারীর আবেদনের ভিত্তিতে গত ৫ মার্চ হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ ফের মামলাগুলি চালু করার নির্দেশ দেয়। যা নিয়ে সোমবার হলদিয়া আদালতে শুনানি হয়। আর সন্ধ্যায় জমি আন্দোলনে জড়িত এই নেতাদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী রায় দেন বিচারক।

ঘটনাটা জানার পরেই নন্দীগ্রাম সহ সারা রাজ্য জুড়ে চাঞ্চল্য ছড়ায়।তৃনমূল নেতাদের গ্রেফতারের সম্ভাবনা তৈরী হওয়ার পাশাপাশি বিজেপির বিরুদ্ধে কৃষক ও কৃষি বিরোধীতার নতুন অস্ত্র হাতে চলে এলো তৃনমূলের।

সেই সুযোগটাই কাজে লাগাতে এবার সচেষ্ট হয়েছে জমি আন্দোলনের অন্যতম নেতৃত্ব তথা এই বিধানসভা কেন্দ্রের তৃনমূল প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্বাচনী এজেন্ট সেখ সুফিয়ান।তিনি বলেন, নির্বাচনের আগে আমাদের গ্রেফতারের ভয় দেখানোর জন্য বিজেপি এই ধরনের ঘটনা ঘটিয়ে চলেছে। তাঁর দাবি এটা করে আসলে বিজেপি তার আসল রূপ দেখিয়েছে নন্দীগ্রাম সহ রাজ্যের মানুষদের। সুফিয়ানের দাবি এর মাধ্যমে বিজেপি যে এই আন্দোলনকে সমর্থন করেনি এতেই প্রমাণ করেছে।সেই সাথে প্রমান করেছে ওরা আসলে কৃষক ও কৃষি বিরোধী।

বলেন দিল্লী,পাঞ্জাব,হরিয়ানা প্রমুখ রাজ্যের মানুষ আগেই বুঝেছে।এবার বাংলার মানুষের বোঝার পালা।

স্বাভাবিক কারনেই নন্দীগ্রাম আন্দোলনের মামলা নতুন করে খুঁচিয়ে তুলে বিজেপি আখেরে রাজনৈতিক ভাবে লাভ নাকি লোকসান করলো,সেই নিয়ে চর্চা শুরু হয়েছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *