Breaking News

মমতাতো নন্দীগ্রামেই থাকবেন, ভোটের পর আপনাদের পাওয়া যাবে তো ? শুভেন্দুকে প্রশ্ন দেবের

Post Views: website counter

কাঁথির ” শান্তিকুঞ্জ” থেকে কয়েক কিলোমিটার দূরে মাজনা দলীয় সভা থেকে শুভেন্দু অধিকারীকে ঘাটালের তৃণমূল সাংসদ দেবের প্রশ্ন নন্দীগ্রামে আপনি কি হেরে যাওয়ার ভয় করছেন ?

একই সাথে এই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে দেব বলেছেন
আপনি বলছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জিতলে নাকি পশ্চিমবাংলা কাশ্মীর হয়ে যাবে হারার ভয় করছেন ? কারণ হারার মুখে দাঁড়ালেই বিজেপি নেতাদের মুখে আসে পাকিস্তান, বাংলাদেশ, হিন্দু, মুসলমান । বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারীকে পরামর্শ দিয়ে বলেছেন আপনার নেতাদের বলুন প্রতিশ্রুতি পালন করতে মানুষ এমনিতেই ভোট দেবে। হিন্দু মুসলিম তাস খেলতে হবে না

রবিবার পূর্ব মেদিনীপুর জেলার মাজনায় দক্ষিণ কাঁথি বিধানসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী জ্যোতির্ময় করের সমর্থনে এক জনসভায় এ কথা বললেন ঘাটালের সাংসদ অভিনেতা দেব ।দলীয় কর্মীদের নিয়ে এই সভা রীতিমতো জনসভায় পরিণত হয় ।

ঘাটালের তৃণমূল সাংসদ দেব বলেন ওরা এখন বলছে তারা নাকি সোনার বাংলা গড়বে।ভালো কথা তাহলে ৭ বছর আগে লোকসভা নির্বাচনে নেমে দেশকে “সোনার চিড়িয়া” গড়ার যে প্রতিশ্রুতি দিয়ে ছিলেন তা পুরন করতে পারলেন না কেন?তৃনমূল সাংসদের প্রশ্ন গত ৫০ বছরের মধ্যে দেশের অর্থ ব্যাবস্থা আপনাদের সময়ে সবচেয়ে খারাপ হোল কেন ?

বলেন স্বপ্ন অনেকেই দেখায় ভোট অনেকেই চায়,কিন্তু সেই স্বপ্নপূরণ তাড়া করতে পারবে কি না সেটা দেখেই ভোট দিতে হয় । দেব বলেন ওরা বলছে ওরা নাকি প্রচুর চাকরি দেবে রাজ্যে ক্ষমতায় এলে। ভালো কথা ।কিন্তু আপনারা বলেছিলেন কেন্দ্রে ক্ষমতায় এলে প্রতিবছর দু কোটি করে কর্মসংস্থান হবে,তার কি হল ?কেন প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে পারলেন না ? কেন স্বাধীনতার পর সবচেয়ে বেশি বেকারত্ব আপনাদের আমলে ?

মারণ ভাইরাস করোনা যখন প্রকোপ ছড়িয়ে ছিল সারা দেশ জুড়ে ,তখন কোন মুখ্যমন্ত্রীকে, কোন নেত্রীকে আপনারা পাশে পেয়েছিলেন । রাস্তায় নেমে আপনাদের পাশে দাঁড়িয়েছিল একটা মুখ্যমন্ত্রী তার নাম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ।বাকি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরা, দেশের প্রধানমন্ত্রী কিন্তু ঘরে বসেই তাদের নির্দেশ পাঠিয়েছিলেন। বোঝা যায় ঘরের মেয়ে বলেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের প্রতিটি প্রান্তে এই বয়সেও এত ঝুঁকি নিয়ে ছুটে গিয়েছিলেন বারবার ।

এই সভা থেকে তৃনমূল ত্যাগী বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারীকেও তীব্র আক্রমণ করেন দেব। ঘাটালের সাংসদ বলেন বলেন আপনার নেতা-নেত্রীদের ভোটের পর পাওয়া যাবে কিনা ঠিক নেই, মমতা ব্যানার্জি কিন্তু থাকবেন ।তিনি নন্দীগ্রামেই থাকবেন, এই বাংলায় থাকবেন ।

এদিনের সভাতে নিজের বক্তব্য শুরু করেছেন খেলা দিয়েই ।বলেন, আমি বলছি মানুষের জন্য খেলা হবে। আর এই খেলা মানুষের জন্য,তাদের জয়ের জন্যে হচ্ছে বলেই তৃনমূল শেষ হাঁসি হাসবে।কারন নিঃস্বার্থে মানুষের উন্নয়নে কাজের এই রাজ্য কেন সারা দেশে মমতা ব্যানার্জির কেউ প্রতিদ্বন্ধি নেই ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *