Breaking News

বিরুলিয়াতে ধস্তাধস্তিতে জড়ালো বিজেপি- তৃণমূলঃঘটনাস্থলে জেলা শাসক

Post Views: website counter

 

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে উত্তেজনা ছড়ালো নন্দীগ্রামে।একদিকে বিরুলিয়াতে হাতাহাতিতে জড়ালো তৃনমূল-বিজেপি সমর্থকেরা।অপরদিকে মুখ্যমন্ত্রীর উপরে হামলার ঘটনার প্রতিবাদে হাজরাকাটায় পথ অবরোধ করে তৃনমূল।সব মিলিয়ে উত্তেজনা বাড়চ্ছে নন্দীগ্রাম সহ রাজ্য রাজনীতিতে।

বুধবার হলদিয়া মহকুমা শাসকের দফতরে মনোনয়ন জমা দিয়ে রেয়াপাড়ায় অস্থায়ী বাসভবনে ফেরার পথে নন্দীগ্রামের বিরুলিয়াতে আক্রান্ত হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর সেই ঘটনা নিয়ে বর্তমানে রাজ্য রাজনীতি তোলপাড়।

গতকাল মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন চক্রান্ত করে তাকে ধাক্কা মারা হয়েছে। এই বক্তব্যের আপত্তি জানিয়ে সকালে বিরুলিয়া মোড়ের কাছে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা বিক্ষোভ দেখাতে থাকে। ঠিক সেই সময় প্রতিবাদে আন্দোলনে নামে শাসক দলের সমর্থকেরাও।ফলে বিজেপি তৃণমূলের মধ্যে ধস্তাধস্তি বেঁধে যায়। মুহুর্তের মধ্যে ওই এলাকায় উত্তপ্ত হয়ে যায়। আন্দোলনকারী বিজেপি কর্মী সমর্থকদের দাবি মুখ্যমন্ত্রী আঘাত নিয়ে মিথ্যা কথা বলছেন। তার আপত্তি জানিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। অপরদিকে মুখ্যমন্ত্রীর কথার সমর্থনে বিজেপির বিরুদ্ধে মমতার উপরে হামলা চালিয়ে সন্ত্রাস করার প্রচেষ্টা হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন তৃণমূল। এরপরে ঘটনাস্থলে বিশাল পুলিশ বাহিনী এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

অপরদিকে বুধবার রাতের ঘটনাকে কেন্দ্র করে নির্বাচন কমিশন নড়েচড়ে বসেছে।কমিশনের নির্দেশে বৃহস্পতিবার সকালে নন্দীগ্রামের ওই ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান পূর্ব মেদিনীপুর জেলার জেলাশাসক বিভূ গোয়েল ও পুলিশ সুপার প্রয়ীন প্রকাশ।তাঁরা স্থানীয় মানুষদের সাথে কথা বলে ঘটনার সত্যাসত্য জানার চেষ্টা করেন ।

বিজেপি-র তমলুক সাংগঠনিক জেলার সহ সভাপতি প্রলয় পাল এর  দাবি, গতকাল মুখ্যমন্ত্রীর পায়ে আঘাত নিছকই দুর্ঘটনা। কারণ বিরুলিয়া বাজারের ওপর দিয়ে যে ঢালাই রাস্তা গিয়েছে, সেখানে প্রায় বছর দুয়েক আগেই রাস্তার দু’পাশে দু’টি লোহার খুঁটি পোঁতা হয়েছিল। ভারী মালবাহী ভ্যান বা ভারী কোনও গাড়ি ওই রাস্তায় যাতে ঢুকে না পড়ে, তার জন্যই এমন ব্যবস্থা নেওয়া হয়। বুধবার সেই খুঁটি না দেখে নামতে গিয়েই মুখ্যমন্ত্রীর পায়ে চোট লাগে। এর সঙ্গে হামলার কোনও যোগ নেই।

যদিও নন্দীগ্রামের তৃণমূল নেতা এবং মমতার নির্বাচনী এজেন্ট শেখ সুফিয়ানের দাবি,বিজেপি বরাবরই ষড়যন্ত্র করে। মমতা নন্দীগ্রামে দাঁড়ানোর পর বিজেপি পায়ের তলায় মাটি পায়নি। তাই দলনেত্রীর ওপর হামলা চালিয়েছে গেরুয়া শিবির। ঘটনায় দোষীদের কড়া শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *