Breaking News

ভারতীয় জওয়ানেরা ফের ঘাড় ধাক্কা দিয়ে তাড়ালো চীনের লাল ফৌজকে

Post Views: website counter

 

ঘাড় ধাক্কা খেলেও লজ্জার মাথা খেয়েছে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিংপিং আর তার লাল ফৌজ !

ফের একবার স্থিতাবস্থা নষ্ট করে লাদাখে আগ্রাসন দেখাল চীনা সেনা। তবে পালটা জবাব দিয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। সোমবার এমনই জানিয়েছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রক।

চলতি বছরে এপ্রিল-মে নাগাদ লাদাখে প্রথম সঙ্ঘর্ষে জড়ায় ভারতীয় ও চীনা বাহিনী। কিন্তু গত ১৫ জুন পরিস্থিতি চরম আকার ধারণ করে। চীনা বাহিনীর অনুপ্রবেশ ঘিরে গালওয়ান উপত্যকায় দু’পক্ষের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সঙ্ঘর্ষ বাধে। তাতে ২০ জন ভারতীয় জওয়ান প্রাণ হারান। চীনের   তরফেও হতাহতের ঘটনা ঘটে। তবে তাদের তরফে কত জন জওয়ান মারা গিয়েছেন, তা আজও খোলসা করেনি বেজিং।তবে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থার দাবি অনুযায়ি সেই সংখ্যাটা ৮০-১০০ জন ।যার জেরে চীনের কমিউনিস্ট সরকারকে সে দেশের সাধারন মানুষ ও সেনা বাহিনীর ক্ষোভের মুখে পড়তে হয় ।

এই কান্ডের দুই মাস কাটতে না কাটতে ফের ভারতের ভূখন্ডে ঢোকার চেষ্টা করলো চীনা সেনা ।সোমবার এমনই জানিয়েছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রক। জানা গেছে, ২৯-৩০ অগস্টের রাতে পূর্ব লাদাখের প্যাংগং সো এলাকায় স্থিতাবস্থা লঙ্ঘন করে সামরিক উস্কানির চেষ্টা করেছিল চীন। তবে ভারতীয় পালটা জবাবে তা সফল হয়নি।

‘প্যাংগং লেকের দক্ষিণ অংশে চীনা বাহিনীর আগ্রাসন রুখতে সক্ষম হয়েছে ভারতীয় সেনা।’ প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের বিবৃতিতে এমনই জানানো হয়েছে। ভারতীয় সেনার জনসংযোগ আধিকারিক কর্নেল আমন আনন্দ বলেন, ‘আলোচনার মাধ্যমে শান্তি বজায় রাখায় বিশ্বাসী ভারতীয় সেনা। তবে সার্বভৌমত্বের রক্ষায় কোনও সমঝোতা তারা করবে না।’

প্যাংগং হ্রদের তীরে চীনা বাহিনীর ঘাঁটি গেড়ে বসা নিয়ে বছরের শুরুতে সীমান্তে যে অচলাবস্থা তৈরি হয়েছিল, এখনও পর্যন্ত তা কাটিয়ে ওঠা সম্ভব হয়নি। দুই দেশের সেনার মধ্যে পাঁচ দফা বৈঠক হলেও এখনও পর্যন্ত স্থানীয় সমাধানে উপনীত হয়ে পারেনি কোনও পক্ষই। সেই অবস্থাতেই সপ্তাহখানেক আগে চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ জেনারেল বিপিন রাওয়াত জানিয়ে দেন যে, আলাপ আলোচনার মাধ্যমে সমাধান না বেরোলে, সামরিক উপায়েই  চীনাকে ঠেকাতে হবে। তার পরেই এই ঘটনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *