Breaking News

রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে বিমাতৃ সুলভ আচরনের অভিযোগ:২৫ হাজার কর্মীর অনশনে বসার হুমকী

Post Views: website counter

 

সারা বাংলা গ্রামীন সম্পদ কর্মী সংগঠন পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য কমিটির ডাকে পশ্চিমবঙ্গের ৩৩৪২ গ্রাম পঞ্চায়েতে গত ৫ আগস্ট সামাজিক দূরত্ব বিধি মেনে প্রতীকী বিক্ষোভ কর্মসূচি পালিত হয় । ঠিক একই রকম ভাবে আজ সারা বাংলার ৩৪১ টি ব্লকে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালিত হয় ।

সারা বাংলা গ্রামীন সম্পদ কর্মী সংগঠন পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য কমিটি মিডিয়া সেল এর পক্ষ থেকে মিডিয়া পার্সন লক্ষ্মীকান্ত দত্ত বলেন লোকসভা নির্বাচনের আগে মুখ্যমন্ত্রী বিভিন্ন জনসভায় সকে সিস্টেমের মধ্যে আনার কথা ঘোষণা করেছিলেন। দীর্ঘ কয়েক মাস অতিক্রান্ত হলেও এখনো পর্যন্ত কোনো সিস্টেমের মধ্যে সারা বাংলা গ্রামীন সম্পদ কর্মীদেরকে আনা হয়নি ।

বর্তমানে ভি আর পি র অবস্থা খুবই করুন , ২০১৫ -১৬ অর্থ বর্ষে , পরীক্ষা পদ্ধতি মেনে নিয়োগ করা হয়েছিল সামাজিক নিরীক্ষা কাজ করার জন্য । মূলত এমজিএনআরইজিএ , বাংলা আবাস যোজনা , জাতীয় সামাজিক সহায়তা প্রকল্পে বছরে দুবার কাজ হবার কথা থাকলেও , বর্তমানে একবার মাত্র সামাজিক নিরীক্ষা কাজ প্রদান করা হয় ।
২০১৮ সালে মে মাসে বিজ্ঞপ্তি জারির মধ্য দিয়ে ভিআরপিদের কে বছরে মাত্র ৬০ দিনের কাজ প্রদান করা হয়েছিল । পতঙ্গ বাহিত রোগ প্রতিরোধ কর্মসূচিতে , দৈনিক মজুরি ছিল ১৫০ টাকা ।

লক্ষ্মীকান্ত দত্ত বলেন রাজ্য সংগঠনের পক্ষ থেকে সম্মিলিত ভাবে আমরা রাসমণি রোডে সমাবেশ সংগঠিত করেছি এবং নবান্ন অভিযান সংঘটিত করেছি ।এর পরেই আমাদেরকে ২৪০ দিন কাজ করার সুযোগ দিয়েছে সরকার। যার বর্তমান মজুরি প্রতিদিন মাত্র ১৭৫ টাকা অর্থাৎ মাসে মাত্র তিন হাজার পাঁচশত টাকা । তাও প্রতিমাসে নিয়মিত আমরা পাইনা। এমত অবস্থায় আমরা এবং আমাদের পরিবার অনাহারে, অর্ধাহারে জীবনযাপন করছি । আমাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে কালিঘাটে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে, নবান্নে, পঞ্চায়েত দপ্তরে, স্বাস্থ্য দপ্তরে ও বিভিন্ন সরকারী দপ্তরে আমাদের দুঃখ দুর্দশার কথা তুলে ধরে, সম্মান জনক মাসিক বেতনের আবেদন জানিয়ে অনেক স্মারকলিপি জমা দিয়েছি ।

সারাবাংলা গ্রামীন সম্পদ কর্মী সংগঠন হুগলি জেলা কমিটির সভাপতি তথা পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য কমিটির সম্পাদক হরিসাধন রুইদাস জানান আগামী দিনে সারাবাংলা গ্রামীন সম্পদ কর্মী দের ৬২ বছর পর্যন্ত কর্মসংস্থান সুনিশ্চিত করা না হলে কলকাতার বুকে বাংলার ২৫০০০ ভিআরপি অনশন আন্দোলনের শামিল হতে চলেছে ।

আজকের গোঘাট ওয়ান ব্লকের এই কর্মসূচিতে উপস্থিত আছেন সারাবাংলা গ্রামীন সম্পদ কর্মী সংগঠন হুগলি জেলা কমিটির সম্পাদক আবুল হাসান , বলেন সত্যিই গ্রামীন সম্পদ কর্মীরা দুর্বিষহ যন্ত্রণার মধ্যে আছে খুব অসহায়তার মধ্যে দিন যাপন করতে হচ্ছে। ৩৫০০ টাকায় সংসার অতিবাহিত করা অসম্ভব। তাই আমরা চাই অনতিবিলম্বে ভি আর পি দের কে একটা সিস্টেমের মধ্যে আনা হোক।

উপস্থিত গোঘাট ওয়ান ব্লক কমিটির সভাপতি শ্রীমন্ত পাল  জানান ভি আর পি দের কে ৬২ বছর পর্যন্ত কর্ম নিশ্চয়তা প্রদান করতে হবে ন্যূনতম ১৫ হাজার টাকা মাসিক বেতন দিতে হবে। এছাড়া উপস্থিত আছেন ব্লক কমিটির সম্পাদিকা মৌসুমী দোলুই, মেডিয়া পারসন হারাধন মুখার্জি এবং গোঘাট ওয়ান ব্লকের গ্রামীন সম্পদ কর্মী বৃন্দ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *