Breaking News

ভোট প্রচারে “জয় শ্রীরাম” স্লোগানের বিরুদ্ধে সুপ্রীম কোর্টে মামলা

Post Views: website counter

 

পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচন নিয়ে এবার দেশের সর্বোচ্চ আদালতে মামলা হল ।মুলত ৮ দফায় নির্বাচন ও ভোট প্রচারে বেরিয়ে “জয় শ্রীরাম” স্লোগান তোলার বিরুদ্ধে সুপ্রীম কোর্টে এই মামলা হয়েছে।আদালত সেই মামলা গ্রহন করেছে বলে সুত্র মারফত জানা গেছে।

সোমবার এম এল শর্মা নামের এক আইনজীবি দেশের সর্বোচ্চ আদালতে পশ্চিমবঙ্গে ৮ দফায় বিধানসভা নির্বাচন করানোর কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেছেন।উল্লেখ্য দেশের বিভিন্ন বিষয়ে এর আগেও বহুবার আইনজীবি এম এল শর্মা সুপ্রীম কোর্টে মামলা দায়ের করেছেন।শুক্রবার পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন ঘোষনা করে নির্বাচন কমিশন।সেখানেই এই রাজ্যে ৮ দফায় নির্বাচনের কথা ঘোষনা করে কমিশন।

সুত্রের মারফত জানা গেছে আইনজীবি এম এল শর্মা মনে করছেন পশ্চিমবঙ্গে ৮ দফায় নির্বাচন করতে চেয়ে কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশন সংবিধানের ১৪ এবং ২১ নং ধারা লঙ্ঘন করেছে।সুপ্রীম কোর্টের কাছে সেই বিষয়টি তুলে ধরে মামলা করেছেন আইনজীবি এম এল শর্মা।এছাড়াও নির্বাচনী প্রচারে “জয় শ্রীরাম” স্লোগানের বিরুদ্ধেও মামলা করেছেন এই আইনজীবি।

প্রসঙ্গত গত কয়েক মাস ধরেই বিজেপি তাঁদের মিছিল-সভায় “জয় শ্রীরাম” স্লোগান তুলছে।তবে সেই স্লোগান বর্তমানে বাড়তি মাত্রা পেয়েছে।গত ২৩ জানুয়ারি কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্যোগে কলকাতায় ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে নেতাজী স্মরন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সামনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী ভাষন দেওয়ার আগের মুহুর্তে “জয় শ্রীরাম” স্লোগান দেওয়া হয় ।এর জেরে অপমানিত বোধ করে মুখ্যমন্ত্রী ভাষন দেননি । সেই ঘটনার পর থেকেই বিজেপির মিটিং মিছিল সভায় “জয় শ্রীরাম” স্লোগান বাড়তি গুরুত্ব পারছে ।

দেশের সর্বোচ্চ আদালতকে আইনজীবি এম এল শর্মা বলেন “জয় শ্রীরাম ” স্লোগান ধর্মীয়।তাকে রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের আগে প্ররোচনা দেওয়ার কাজে ব্যাবহার করা হচ্ছে।রাজনৈতিক মিটিং-সভায় এই স্লোগান আসলে ভারতীয় জনপ্রতিনিধি আইনের ১২৩(৩) ও ১২৫ ধারার পরিপন্থি।তাই যারাই বাংলার ভোট প্রচারে এই স্লোগান তুলবে তাঁদের বিরুদ্ধে সিবি আইকে মামলা করার নির্দেশ দেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন এই আইনজীবি।আগামী কয়েক দিনের মধ্যে মামলার শুনানি হবে বলে সুত্রের থেকে জানা গেছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *