Breaking News

ঘাটাল-পাঁশকুড়া রাজ্য সড়ক পার্শ্বস্থ ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ও দোকানদারদের মেদিনীপুর জেলা শাসক অফিসে বিক্ষোভ-ডেপুটেশন

Post Views: website counter

 

পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার ঘাটাল-পাঁশকুড়া ৪ নম্বর রাজ্য সড়ক সম্প্রসারণের পরিপ্রেক্ষিতে মেছোগ্রাম থেকে ঘাটাল পর্যন্ত রাস্তার দু’পাশে ক্ষতিগ্রস্ত কয়েক হাজার দোকানদার ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী বর্তমানে আতঙ্কিত অবস্থায় দিন গুজরান করছে।

ওই ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ও দোকানদারেরা পুনর্বাসনের দাবীতে আন্দোলনের প্ল্যাটফর্ম হিসাবে গঠন করেছেন “ঘাটাল-পাঁশকুড়া রাজ্য সড়ক পার্শ্বস্থ ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমিতি”। ঐ সমিতির পক্ষ থেকে আজ ২৩শে ফেব্রুয়ারি মেদিনীপুর ডি.এম. অফিসে বিক্ষোভ – ডেপুটেশনের কর্মসূচি হয়। ডি.এম.’র অনুপস্থিতিতে এ.ডি.এম(এল.আর.) স্মারকলিপি গ্রহন করে দাবীগুলি মানবিক দৃষ্টিতে দেখার আশ্বাস দেন। বক্তব্য রাখেন, সমিতির উপদেষ্টা ও মেদিনীপুর ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী পুনর্বাসন সংগ্রাম সমিতির মুখপাত্র নারায়ণ চন্দ্র নায়ক, সমিতির সভাপতি শক্তি পদ আদক,অফিস সম্পাদক অঞ্জন জানা প্রমুখ। প্রতিনিধি দলে ছিলেন সমিতির উপদেষ্টা নারায়ণ চন্দ্র নায়ক, শক্তিপদ আদক,পুলিন সাউ,কৃষ্ণ মোহন মাজী প্রমুখ।

কর্মসূচীতে প্রায় তিন শতাধিক দোকানদারেরা উপস্থিত ছিলেন। বিক্ষোভকারীরা জেলা পরিষদের পূর্ত কর্মাধক্ষ্য এবং পূর্ত দপ্তরের সুপারিনটেন্ডিং ইঞ্জিনিয়ার অফিসেও ডেপুটেশন এর মাধ্যমে স্মারকলিপি পেশ করেন।

বিক্ষোভ সভায় সমিতির উপদেষ্টা নারায়ণ চন্দ্র নায়ক বলেন, প্রশাসন আমাদের দাবীগুলি সহানুভূতির সাথে বিবেচনা না করলে সমিতি আগামীদিনে বৃহত্তর আন্দোলনের কর্মসূচি নিতে বাধ্য হবে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, কেন্দ্রীয় সড়ক দপ্তরের অর্থানুকূল্যে রাজ্য সড়ক দপ্তর ১৬৬ কোটি ৮৮লক্ষ টাকা ব্যয়ে রাস্তাটি সম্প্রসারণের কাজে হাত দিয়েছে। ৭ মিটার চওড়া রাস্তাটি সম্প্রসারণের পর ৩ মিটার বেড়ে হবে ১০মিটার। দুদিকে ৫ ফুট থাকবে ফুটপাত। রাস্তার উচ্চতা হবে ২ ফুট। কাজের সময়সীমা দেওয়া হয়েছে ৯০০ দিন।

এজন্য ৪৫ টি কালভার্ট নূতন করে নির্মিত হবে।সম্প্রতি পূর্ত দপ্তরের পক্ষ থেকে মাইক প্রচার করে রাস্তা পার্শ্ববর্তী দোকান সরিয়ে নেওয়ার কথা ঘোষণা করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *