Breaking News

ভোটের আগে বিজেপির “মাছে ভাতে বাঙালি”

Post Views: website counter

রাজ্যের সাধারন মানুষের মুখে খাওয়ার তুলে দিতে ভোটের আগে চমক দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী।মাত্র ৫ টাকার বিনিময় মা প্রকল্পের মাধ্যমে সাধারন মানুষের মুখে সব্জী তরকারি সহ ডিম ভাত তুলে দেওয়ার ব্যাবস্থা করা হয়েছে।রাজ্যের বহু প্রান্তে এই প্রকল্পে সাধারন মানুষ পেট ভরে খাচ্ছেন।

এর পাল্টা এবার বিনে পয়সায় “মাছে ভাতে বাঙালি” প্রকল্প চালু করলো রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল বিজেপি। রবিবার মাতৃ ভাষা দিবসের দিনে এই প্রকল্প চালু করলো বিজেপি ।

পূর্ব মেদিনীপুর এর পানিপারুলের বিজেপি নেতৃত্বরা নিজেদের খরচে এলাকার প্রায় ৫০০ মানুষকে বসিয়ে খাওয়ালেন। আলু ভাজা,ডাল,মাছের ঝোল,চাটনি সহকারে মধ্যাহ্ন ভোজনের আয়োজন করে এগরার পানিপারুল বিজেপির নেতৃত্বরা।এমন “মাছে ভাতে বাঙালি” নামের এই প্রকল্প গোটা এগরা এলাকা জুড়ে বিভিন্ন দিন বিভিন্ন জায়গায় চলতে থাকবে জানান বিজেপি নেতৃত্বরা।

সকালে চায়ে পে চর্চার পাশাপাশি দুপুরে মধ্যাহ্ন ভোজনের চর্চার আয়োজন হবে বলে জানান এ দিনের আয়োজক বিদেশ পাত্র ও কনিষ্ক পণ্ডা। তাঁরা আরো বলেন বাঙালিআনার সংস্কৃতি কে তুলে ধরতে মাছে ভাতে বাঙালি এমন অনুষ্ঠান করবে এগরার বিজেপি।

বিদেশ পাত্র বলেন বুথে বুথে দলীয় সভা করতে গিয়ে বুঝেছি বহু মানুষের দুই বেলা অন্ন জুটেনা।এই রাজ্যে প্রথমে বাম সরকার ও পরে গত দশ বছর তৃনমূল সরকারও সাধারন মানুষের প্রতিদিন অন্ন যোগানের ব্যাবস্থা করে উঠতে পারেনি।ক্ষমতায় এলে আমরা সেই সমস্যা সমাধানের করবো।তবে তার আগে দলীয় উদ্যোগে যতটা মানুষের পাশে থাকা যায়,সেই প্রচেষ্টা চালাচ্ছি আমরা ।

তৃনমূল অবশ্য বিজেপির এই প্রকল্পের তীব্র কটাক্ষ করেছে।যুব তৃনমুল কংগ্রেসের পূর্ব মেদিনীপুর জেলার সভাপতি সুপ্রকাশ গিরি বলেন রাজ্য সরকার রাজ্যের সর্বত্র এই প্রকল্প চালু করেছে সাধারন মানুষের কথা ভেবে।সেখানে কোন রাজনৈতিক রং নেই ।তৃনমূলের পাশাপাশি কংগ্রেস,বিজেপি কিংবা কোন দলের সমর্থক না হয়েও মা প্রকল্পের সুবিধা নিতে পারবে। কিন্তু বিজেপির উদ্যোগ রাজনৈতিক।নির্বাচনের আগে চটকবাজী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *