Breaking News

শম্ভু মিত্র ও বিজন ভট্টাচার্য স্মৃতি নাট্য উৎসব

Post Views: website counter

ইন্দ্রজিৎ আইচ

দমদমের ঐতিহ্যবাহী নাট্যদল রবীন্দ্রনগর নাট্যায়ুধ আয়োজিত আন্তর্জাতিক দমদম নাট্য উৎসব ‘শম্ভু মিত্র ও বিজন ভট্টাচার্য স্মৃতি নাট্য উৎসব’ সপ্তম বর্ষে উদযাপিত হোল। এ বারের উৎসব অনুষ্ঠিত হল তিনটি পর্যায়ে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলার ভিন্ন মঞ্চে । কলকাতায় প্রথম পর্বে মুক্তাঙ্গন রঙ্গালয়, উত্তর চব্বিশ পরগণা দ্বিতীয়পর্বে হালিশহর পিতৃদেব মধুসূদন মঞ্চে এবং মেদিনীপুর তৃতীয় পর্বে মহিষাদল শিল্পকৃতি স্টুডিও থিয়েটারে।

নাট্য উৎসবের পরিচালক ড. দানী কর্মকার বলেন, “প্রথম থেকেই আমাদের উদ্দেশ্য ছিল যে আমরা এমন একটা নাট্য উৎসব করবো যেখানে আমাদের থিয়েটারের যে নাট্য কিংবদন্তিরা আছেন তাঁদেরকে স্মরণ করে করবো এবং সেই স্মরণের উদ্দেশ্য নিয়ে বাংলা থিয়েটারের দুই কিংবদন্তি নাট্যকার, পরিচালক এবং অভিনেতা শম্ভু মিত্র ও বিজন ভট্টাচার্য স্মৃতি নাট্য উৎসবের সূচনা । রবীন্দ্রনগর নাট্যায়ুধ ৭ বছর ধরে আয়োজন করে আসছে এনাদের স্মৃতি নাট্য উৎসব ।

এই বছর এই নাট্য উৎসবে মঞ্চস্থ হয় রবীন্দ্রনগর নাট্যায়ুধ-এর একবারে নবতম হিন্দি নাট্য প্রযোজনা ড. দানী কর্মকার রচিত ও নির্দেশিত নাটক ‘তথাগত’ ও ‘অন্তরণ’,এ ছাড়াও ছিল মিউনাস কলকাতার নাটক ‘অপেক্ষায়’, দক্ষিণ চব্বিশ পরগণা এষণা জয়নগরের নাটক ‘প্রতিধ্বনি’, হুগলী জেলার হরিপাল অন্যভুবন নাট্যগোষ্ঠীর নাটক ‘খোলা জানলা’, উত্তর চব্বিশ পরগণার বাংলার সিঞ্চনের নাটক ‘মেয়েলিপনা’, পূর্ব মেদিনীপুর জেলার শিল্পকৃতি মহিষাদলের নাটক ‘ডাকঘর’, হাওড়া জেলার কথক পারফর্মিং রেপোর্টারের নাটক ‘রামলীলা’সহ রংতাল থিয়েটারের মূকাভিনয় ‘সেভ ওয়াটার সেভ লাইফ’ ।

একটি মূকাভিনয়সহ মোট ৮টি নাটক প্রদর্শিত হয় । উৎসবে ভিন্ন ভিন্ন জেলার নাটক প্রদর্শনের পাশাপাশি ছিল নাট্য বিষয়ক সেমিনার ।

আলোচনার বিষয় ছিল ‘বর্তমান থিয়েটারের সংকট ও মুক্তি’ । বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ড. অপূর্ব দে ও রতন চক্রবর্তী । এবং দ্বিতীয় পর্বে আলোচনার বিষয় ছিল ‘বিকল্প থিয়েটার: স্পেস ও প্রয়োগ’ । বক্তা ছিলেন সুরজিৎ সিনহা ও কৃতি মজুমদার । এছাড়া ছিল নাট্য চিত্রের প্রদর্শনী ও বুক স্টল ।

এই বছর ‘নাট্যায়ুধ নাট্যগুরু’ সম্মানে সম্মানিত করা হয় বিশিষ্ট নাট্যব্যক্তিত্ব শ্রী বিভাস চক্রবর্তীকে ।

এছাড়া ‘নাট্যায়ুধ নাট্য সম্মান’ প্রদান করা হয় চারজন বিশিষ্ট নাট্য পরিচালক উৎসব দাস, সুরজিৎ সিনহা, রতন চক্রবর্তী ও কৃতি মজুমদার কে।

দমদমের একটি গৌরব উজ্জ্বল নাট্যদল হল রবীন্দ্রনগর নাট্যায়ুধ । ২০১০ সালের ৫ই মার্চ ড. দানী কর্মকারের নেতৃত্বে জন্ম হয় এই দলের। দীর্ঘ ১১ বছর ধরে ধারাবাহিকভাবে নাট্যচর্চা করে চলেছে রবীন্দ্রনগর নাট্যায়ুধ । এবারএর এই উৎসবে রবীন্দ্রনগর নাট্যায়ুধের নাটক “তথাগত” দারুন সাড়া জাগিয়েছে মানুষের মধ্যে । গৌতম বুদ্ধের মার্গ অহিংসা আর প্রেমের মার্গ । যেখানে জাতিগত ভেদভাব নেই, নেই দেশগত ভেদভাব । কেবল আছে মানবতা । বুদ্ধের দর্শনে মানুষের মনই মন্দির আর করুণাই দর্শন । এবার মানবতার শ্রেষ্ঠ পাঠ তুলে ধরতে নাটকটিতে অভিনয় করেছেন বর্ণালী কর্মকার, অমিত সরকার, রাজদীপ সাহা, মৃগাঙ্ক সিংহ, বিনায়ক কর্মকার, বিশ্বজিৎ প্রামাণিক ও ঈশান কর্মকারসহ অন্যরা ।

পশ্চিমবঙ্গ নাট্য আকাদেমির সহযোগিতায় এই উৎসবের আয়োজন করা হয়েছিল ।এই উৎসবের উদ্বোধক হিসেবে ছিলেন রাজ্য সঙ্গীত, নাটক ও দৃশ্যকলা অ্যাকাডেমির সচিব ড. হৈমন্তী চট্টোপাধ্যায়, মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট নাট্য ব্যক্তিত্ব উৎসব দাস, সুরজিৎ সিনহা, কৃতি মজুমদার ও মূকাভিনেতা রতন চক্রবর্তী ।দ্বিতীয় পর্বে হালিশহর পিতৃদেব মধুসূদন মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক ও নাট্য গবেষক ড. অপূর্ব দে ও বিশিষ্ট মূকাভিনেতা রতন চক্রবর্তী । এবং শেষ দিন অর্থাৎ তৃতীয় পর্বে মেদিনীপুর মহিষাদল শিল্পকৃতি স্টুডিও থিয়েটারের উদ্বোধনী মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট নাট্যব্যক্তিত্ব তপন চক্রবর্তী, সুরজিত সিনহা, কৃতি মজুমদার ও বিশিষ্ট শিক্ষক নিখিল কুমার মাইতি ।
সব মিলিয়ে সাড়ম্বরে উদযাপিত হোল এই নাট্য উৎসব ২০২১।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *