Breaking News

বাংলার সবচেয়ে বড় তোলাবাজ শুভেন্দু:অখিল গিরি

Post Views: website counter

 

“এই রাজ্যের সবচেয়ে বড় তোলাবাজ হল শুভেন্দু অধিকারী।সারা রাজ্যের মানুষ সেটা জানে।আর তারপরেও সেই শুভেন্দু অধিকারী অন্যদের বলে তোলাবাজ।”নিজের নির্বাচনী কেন্দ্র রামনগরের দিঘা থেকে এই ভাষাতেই রাজ্যের প্রাক্তন পরিবহন মন্ত্রী বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারীকে আক্রমন করেন বিধায়ক অখিল গিরি ।

গত দুই দিন আগে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার সৈকত শহর দিঘায় পদযাত্রা ও পথসভা করেছিলেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী।সেই সভা থেকে নাম না করে এলাকাক্র তৃনমূল নেতাদের তীব্র আক্রমন করেছিলেন শুভেন্দু ।সোমবার তার পাল্টা সভা করল তৃণমূল।

এই দিন এই পাল্টা সভা থেকে জেলা নেতৃত্ব থেকে শুরু করে ব্লক তৃণমূল নেতৃত্ব কার্যত একজোটে নিশানা করেন বিজেপি ও শুভেন্দু অধিকারীর উপর।সভা শেষে শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে জেলা যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি অখিল পুত্র সুপ্রকাশ গিরি শুভেন্দুকে নিশানা করে বলেন শুভেন্দু বাবু সহ বিজেপি নেতারা যে ভাবে এলাকাকে কলঙ্কিত করেছে তারই পাল্টা এই সভা থেকে সমস্ত উত্তর দেওয়া হল ।বিজেপি নেতাদের মিথ্যাচারের জবাব দেওয়া হল ।

এইদিন শুভেন্দু অধিকারীকে কার্যত চ্যালেঞ্জ ছুড়ে তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি সুপ্রকাশ গিরি, বলেন শুভেন্দু অধিকারীর যদি বুকের পাটা থাকে নন্দীগ্রামে বিজেপির প্রার্থী হয়ে দাঁড়াক। আমরা যুবকরা বলছি ৫০ হাজার ভোটে তাঁকে আটকে দেব ! ৫০ হাজার এক হতে দেবো না, পাশাপাশি তিনি আরো বলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যবে থেকে নন্দিগ্রামের থেকে লড়াই করবেন বলেছেন তবে থেকেই শুভেন্দু অধিকারীর মাথা খারাপ হয়ে গিয়েছে, উনি ভুলভাল বকছেন। পাশাপাশি শুভেন্দু অধিকারী কে কর্পোরেট চোর হিসাবে কটাক্ষ করেন।

তিনি বলেন উনাদের মধ্যে ম্যানেজিং ডাইরেক্টর, ডাইরেক্টর সব রয়েছে যারা ১০ বছর ধরে সব লুটে পুটে খেয়ে এখন বলছে আমরা সাধু।অন্যদিকে একাধিক তৃণমূল নেতৃত্ব থেকে শুরু করে মন্ত্রিসভার সদস্যরা একের পর এক তৃণমূল ছেড়ে দেওয়ার প্রসঙ্গ নিয়ে বলেন তৃণমূলের যা বিষ ছিল সব আস্তে আস্তে সরে যাচ্ছে, আরো যারা রয়েছে তারা সরে যাবে, এতে দলের কোনো ক্ষতি হবে না।

এ দিনের সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পূর্ব মেদিনীপুর জেলা তৃণমূল সংখ্যালঘু সেলের সভাপতি শেখ আনোয়ারউদ্দীন, জেলার প্রাক্তন সহকারী সভাধিপতি ও জেলা কোর কমিটির সদস্য মামুদ হোসেন, রামনগর-১ ব্লক তৃণমূলের সভাপতি নিতাই সার ও রামনগর-১ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি শম্পা মহাপাত্র, স্থানীয় তৃণমূল নেতা সুশান্ত পাত্র প্রমুখ।

এই পাল্টা সভা থেকে নিজের ভাষনে রামনগরের বিধায়ক অখিল গিরিও শুভেন্দু অধিকারীকে তোলাবাজ বলে আক্রমন করেন ।আগামী দিনে সমস্ত ঘটনা প্রকাশ্যে তুলে ধরার হুশিয়ারি দিয়েছেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *