Breaking News

নিরঞ্জন সদনে তৃতীয় পর্বে পাঁচ দিনের নাট্য উৎসব

Post Views: website counter

 

গোবরডাঙ্গা ও চন্দন নগর এর পর সম্প্রতি কলকাতার নিরঞ্জন সদন এ হয়ে গেলো সমস্বর শিল্পী সমন্বয় আয়োজিত পাঁচ দিনের সমস্বর নাট্য উৎসব। এই উৎসবে বহিরঙ্গনে ১০ টি মঞ্চ নাটক ৫ টি পথ নাটক এবং ২টি শ্রুতি নাটক ছাড়াও হয় নাটকের গান। উৎসবের প্রথম দিন দুপুরে দুই শতাধিক নাটকের শিল্পী, কলা কুশলী ও নাট্য নির্দেশক পদযাত্রায় অংশ নেয়।

বিকেলে এই নাট্য উৎসবে উদ্বোধন করেন নাট্যব্যক্তিত্ব মেঘনাদ ভট্টাচার্য। ঐ দিন উপস্থিত ছিলেন অংশুমান ভৌমিক , রঙ্গন দত্ত গুপ্ত, কিংশুক রায়। নাটকের গান পরিবেশন করেন স্বরাজ ভট্টাচার্য। বিভাব নাট্য একাডেমীর ২৫ বছর উপলক্ষে প্রকাশিত হয় বিভাব নাট্যপত্র। এর পর হয় দুইটি নাটক হালিশহর ইউনিটি মালঞর বিশ্বাস এবং ইছাপুর আলেয়ার

উৎসবের দ্বিতীয় দিন বিকেল ৫ টায় হয় পথ নাটক মৃচ্ছকটিক এবং বলাকা। মঞ্চে প্রদর্শিত হয় গোবরডাঙা নকশার সুভা এবং নাট্যবিতান এর সামলে ধরুন।

তৃতীয় দিন হলের বাইরে পথ নাটক মঞ্চস্থ করে টালিগঞ্জ নিত্যনাট্য এবং ঢাকুরিয়া নাট্যমূখ ।এরপর মঞ্চে বরানগর এবং এর এবং অরণ্যদেব ও বেলঘরিয়া অঙ্গন এর শেষ বাহাদুর শাহ জাফর মঞ্চস্থ হয়। ঐ দিন মঞ্চে সম্মানিত হন পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সংগীত নাট্য একাডেমির সচিব হৈমন্তী চট্রোপাধ্যায় এবং বিশিষ্ট সাংবাদিক ও নাট্য গবেষক ইন্দ্রজিৎ আইচ।

চতুর্থদিন পথ নাটকে অংশগ্রহণ করেন নবারুণ থিয়েটার, নবকললোল এবং বৈতালিক। মঞ্চে প্রদর্শিত হয় ব্যান্ডেল আরোহী র ছেঁড়া ক্যানভাস ও বেলঘরিয়া এথিক এর লাইল্যাক তোমাকে। এই দিন সম্মান জানানো হয় পীযূষ পাল কে।

পঞ্চমদিন অর্থাৎ উৎসবের শেষ দিনের বিকেলে এক আড্ডার আয়োজনে প্রায় ৫০ জন অংশগ্রহণ করেন। মঞ্চে প্রদর্শিত হয় চন্দননগর যুগের যাত্রী চাঁদ সদাগর এবং বিভাব নাট্য একাডেমীর নাটক সাইরেন। এই দিন সম্মান জানানো হয় রঞ্জন গঙ্গোপাধ্যায় ও ভদ্রা বসুকে।

অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে শতাধিক মানুষের উপস্থিতিতে এক সাথে গলা মিলিয়ে আগুনের পরশমণি গানের মধ্য দিয়ে। এক অসাধারণ মুহূর্তে সমস্বরের হয়ে বিভাব ঘোষণা করেন পরবর্তী চতুর্থ পর্বের উৎসব হবে নৈহাটির ঐক্যতান মঞ্চে ৯ থেকে১৩ই ফেব্রুয়ারি। সব মিলিয়ে সাড়ম্বরে উদযাপিত হল এই নাট্য উৎসব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *