Breaking News

শুভেন্দুর সভার পরেই উত্তেজনা ভগবানপুরে:আক্রান্ত শাসক দলের পঞ্চায়েত প্রধান

Post Views: website counter

 

গভীর রাতে তৃনমূল পঞ্চায়েত প্রধান সহ তৃনমূল কর্মীদের উপরে হামলার ঘটনা ঘটেছে।অভিযুক্ত বিজেপি।বুধবার বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী,সাংসদ লকেট চ্যাটার্জীর সভার পরেই উত্তেজনা ছড়ায় বলে অভিযোগ। পূর্ব মেদিনীপুর জেলার ভাজাচাউলি, জুখিয়া,বরোজ,অর্জুননগর, আড়গোয়াল, সাউথখন্ড,বাথুয়াড়ী প্রভৃতি অঞ্চলে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি করে হয়েছে।এর প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার সকালে আন্দোলনে নামে তৃনমূল।তবে বিজেপি তাদের বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

অভিযোগ বিজেপি মদতপুষ্ট সমাজবিরোধীদের দৌরাত্ম্যে এলাকায় শান্তি, শৃঙ্খলা ও উন্নয়নের জয়যাত্রা বিঘ্নিত করার অপচেষ্টা চলছে। তৃনমূলের।শাসক দলের দাবি গতকাল অর্জুননগরে বিজেপির সভায় জনসমাগম না হওয়ায় অশান্তি সৃষ্টি তে উস্কানিমূলক বক্তব্য রাখেন শুভেন্দু অধিকারী সহ বিজেপি নেতৃত্ব।

সভা শেষে জুখিয়া অঞ্চলের গ্রাম প্রধান অম্বিকেশ মান্নার উপরে রাতের অন্ধকারে কাপুরুষের মতো আক্রমণ করে বিজেপির সমর্থনপুষ্ট দুষ্কৃতকারীরা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তমলুক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন অম্বিকেশ মান্না,তরুণ দাস সহ কয়েকজন কর্মী ও নেতৃত্ব। এই সব সমাজবিরোধী দৌরাত্ম্যের প্রতিবাদে দুষ্কৃতকারী দের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্হা গ্রহণের দাবী তে মুগবেড়িয়া থানায় দফায় দফায় বিক্ষোভ ও ডেপুটেশন কর্মসূচি রূপায়িত হয়।

বৃহস্পতিবার  সকালে জুখিয়া বাজারে প্রতিকী পথঅবরোধ ও বিক্ষোভসভা আয়োজিত হয়। কর্মসূচীতে নেতৃত্ব দেন ও বক্তব্য রাখেন জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের কো আর্ডিনেটর বিধায়ক অর্ধেন্দু মাইতি, জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের কো আর্ডিনেটর মামুদ হোসেন, জেলা তৃণমূল কংগ্রেস নেতা জেলা পরিষদ সদস্য উত্তম বারিক, ভগবানপুর-২ ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি শশাঙ্ক শেখর জানা, ভানু মাইতি,অশ্বিনী খাটুয়া,সুমিত্র প্রধান প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের কো আর্ডিনেটর তথা প্রাক্তন সহকারী সভাধিপতি মামুদ হোসেন তাঁর বক্তব্যে বলেন জামা পাল্টানো সিপিআইএম হার্মাদরা বিজেপির জার্সি পরে এলাকায় গোলমাল পাকানোর অপচেষ্টা করছে।নব্য বিজেপির নেতা সন্ত্রাস সৃষ্টিতে মদত যোগাচ্ছেন।পুলিশ প্রশাসন ২৪ ঘন্টার মধ্যে এলাকাকে হার্মাদ মুক্ত না করলে গণপ্রতিরোধের মাধ্যমে এলাকায় শান্তিশৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে সচেষ্ট হবে বলে পুলিশ কে হুঁশিয়ার করেন মামুদ হোসেন।

পরে কয়েকজন বিজেপি দুষ্কৃতকারী দের পুলিশ গ্রেফতার করলে বিক্ষোভ কর্মসূচী তুলে নেওয়া হয়। লাগাতার জনসংযোগ যাত্রার আহ্বান জানান তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি শশাঙ্ক শেখর জানা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *