Breaking News

দিঘার পর্ষদের পরে এবার দলের জেলা সভাপতি থেকে অপসারিত শিশির অধিকারী

Post Views: website counter

 

শুভেন্দু অধিকারীর বিজেপিতে যোগদানের পরবর্তী পরিস্থিতে প্রথমবার ১৮ তারিখ নন্দীগ্রামে সভা করতে আসছেন তৃনমূল নেত্রী মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী।তার আগে এই জেলায় অধিকারীদের ক্ষমতা খর্ব করতে প্রায় প্রতিদিন একের পর এক পদক্ষেপ নিচ্ছে তৃনমূল ।সেই পরিকল্পনার অঙ্গ হিসাবে দিঘা শংকরপুর উন্নয়ন পর্ষদের চেয়ারম্যান এর পদ থেকে সোমবার রাতে অপসারিত হয়েছিলেন,এবার সাংগঠনিক পদ থেকে সরানো হল শিশির অধিকারীকে ।

পূর্ব মেদিনীপুরের তৃণমূলের জেলা সভাপতি পদ থেকে শিশির বাবুকে অপসারণ করে দায়িত্ব দেওয়া হল রাজ্যের মন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্রকে।যদিও নতুন কমিটিতে চেয়ারম্যান পদে রাখা হয়েছে কাঁথির সাংসদ শিশিরবাবুকে।

ওয়াকিবহল মহলের মতে, রাজ্যের প্রাক্তন পরিবহন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী ও কাঁথি পৌরসভার প্রাক্তন প্রশাসক সৌমেন্দু অধিকারির বিজেপি যোগের কারণেই তৃণমূলে থেকেও দলের সঙ্গে ক্রমশ দূরত্ব বেড়েছে শিশিরবাবুর। উল্লেখ সাম্প্রতিক সময়ে শাসকদলের কোনও সভায় বা মিছিলে শিশির অধিকারীর দেখা মেলেনি। ফলে তাঁর রাজনৈতিক অবস্থান নিয়ে ক্রমশ বাড়তে থাকে জল্পনা।

তবে শুধু শিশির অধিকারী নয়,জেলা কমিটিতে একাধিক মুখ সরিয়ে নতুন মুখ আনা হয়েছে।জেলা কমিটি থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে কো অর্ডিনেটার শুভেন্দু অধিকারী ঘনিষ্ট আনন্দময় অধিকারী ও মুখপাত্র মধুরিমা মন্ডলকে।

আগে জেলা কমিটিতে তিন জন কোর্ডিনেটার ছিলেন অর্ধেন্দু মাইতি,অখিল গিরি ও আনন্দময় অধিকারী।নতুন জেলা কমিটিতে এক জনকে সরিয়ে আরো চার জনকে যুক্ত করা হল ।তাঁরা হলেন গৌরমোহন দাস ঠাকুর,দেবপ্রসাদ মন্ডল,সেক সুফিয়ান ও মামুদ হোসেন।জেলার মুখপাত্র পদে এক জনকে সরিয়ে তিন জনকে আনা হয়েছে। তাঁরা হলেন কাজল বর্মন,তাপস মাইতি ও পার্থ সারথী মাইতি।পদ থেকে অপসারিত কিংবা নব নিযুক্ত পদাধিকারীদের কোন প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

তবে ১৮ তারিখ নন্দীগ্রামে সভা করতে আসার আগে জেলার দলীয় ও প্রশাসনিক স্তরে অধিকারীদের কোন প্রভাব যে তৃনমূল রাখতে চায়না তা স্পষ্ট।সুত্রের দাবি মমতার সভায় কাঁথির সাংসদ শিশির অধিকারী ও তমলুকের সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী হাজির থাকবেনা ধরে নিয়েই প্রস্তুতি চালাচ্ছে তৃনমূল নেতৃত্ব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *