Breaking News

উদয়শঙ্করের জন্মদিনে মেদিনীপুর ডান্সার্স ফোরামের উদ্যোগে নানা কর্মসূচি

Post Views: website counter

 

নৃত্যগুরু তথা নৃত্যশিল্পী পন্ডিত উদয়শঙ্করের জন্মদিন চিরাচরিত কর্মসূচির পাশাপাশি কিছু ব্যাতিক্রমী কর্মসূচির গ্রহণের মধ্য দিয়ে পালন করলো মেদিনীপুরের নৃত্যশিল্পীদের যৌথ মঞ্চ মেদিনীপুর ডান্সার্স ফোরাম।

সকালে ফোরামের পক্ষ থেকে মেদিনীপুর ডি এ ভি পাবলিক স্কুল ক্যাম্পাসে বেশ কিছু চারাগাছ লাগানো হয়। বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি শুরুর আগে স্কুল ক্যাম্পাসে অবস্থিত দয়ানন্দ সরস্বতীর আবক্ষ মূর্তিতে মাল্যদান করা হয়। উপস্থিত ছিলেন স্কুলের টিচার ইন চার্জ টি কে সন্নিগ্রাহী সহ বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকা-শিক্ষাকর্মী বৃন্দ।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মেদিনীপুর শহরের রবীন্দ্র নিলয়ে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে সাংস্কৃতিক কর্মসূচির পাশাপাশি সমাজসেবা মূলক কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। এদিন সন্ধ্যায় অনুষ্ঠানের শুরু বর্তমান সময়ে কোভিড বা অন্যান্য কারণে প্রয়াত সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় সহ অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ এবং প্রয়াত সমস্ত জনসাধারণের স্মৃতির উদ্দেশ্যে মোমবাতি প্রজ্বলন করা হয়।

ফোরামের পক্ষ থেকে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও উদয়শঙ্করের প্রতিকৃতিতে মাল্যদান করা হয়। এদিনের অনুষ্ঠানে কোভিড পরিস্থিতির মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখার জন্য জেলা তথ্য ও সংস্কৃতি আধিকারিক অনন্যা মজুমদার, রবীন্দ্র স্মৃতি সমিতির সাধারণ সম্পাদক লক্ষণচন্দ্র ওঝা, চিকিৎসক ডাঃ প্রবোধ পঞ্চধ্যায়ী, চিকিৎসক ডাঃ প্রতীপ তরফদার ও জেলার এক বিশিষ্ট সাংবাদিককে কোভিড যোদ্ধা হিসেবে সম্মানিত করা হয়।

পাশাপাশি পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার শালবনী কোভিড হাসপাতালের সমস্ত চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের সম্মানিত করা হয়। তাঁদের পক্ষে উপস্থিত দুজন সেবিকা এই সম্মান গ্রহণ করেন। এদিনের কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন ফোরামের সভাপতি সুতনুকা পাল চ্যাট্টার্জী, সম্পাদক রাজনারায়ণ দত্ত সহ অন্যান্য সদস্য-সদস্যারা উপস্থিত ছিলেন।এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ফোরামের শুভানুধ্যায়ী অধ্যক্ষ সত্যব্রত দোলই,সময় বাংলার কর্ণাধার জয়ন্ত মন্ডল, সমাজসেবী কুনাল ব্যানার্জী, সমাজসেবী শিবপ্রসাদ গোস্বামী, শিক্ষক সুদীপ কুমার খাঁড়া প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন শতাব্দী গোস্বামী চক্রবর্তী ও ঈশিতা চট্টোপাধ্যায়।

সকাল ও সন্ধ্যার কর্মসূচিতে বিভিন্ন সময়ে ডান্সার্স ফোরামের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন সোমা চৌধুরী চট্টরাজ,শ্রাবনী দত্ত,দেবলীনা কোনার বিষ্ণু,শাশ্বতী শাসমল,কেয়া খাঁড়া,দোলা পুরোহিত,মহেশ্বেতা দত্ত রায় রাউল,সংঘমিত্রা পুরোহিত, রাজীব খান,ত্রিপর্ণা ভট্টাচার্য, শমীক সিনহা,সহেলী বেরা,প্রিয়াংকা প্রমালিক, দেবযানী সরকারসহ অন্যান্য সদস্য-সদস্যার উপস্থিত ছিলেন।উল্লেখ্য সবুজায়নের বার্তা দিতে বছরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দিনে বছরভর চারাগাছ রোপণের ধারাবাহিক কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *