Breaking News

চুরির অপবাদ:আত্মঘাতি স্ত্রী

Post Views: website counter

 

প্রদীপ কুমার সিংহ

সন্ধ্যার সময় স্বামীর সঙ্গে এক গৃহবধূ বাজারে যায়। বাজার থেকে ফিরে আসার পর স্বামী তার স্ত্রীকে টাকা চুরি করার অপবাদ দেয়। সেই নিয়ে এল স্বামী ও স্ত্রীর সঙ্গে তুমুল অশান্তি হয়। স্বামীর পরিবারের লোকেরা এসে স্ত্রীকে মারধর করে। এই অপমানের গৃহবধূ বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করে। ঘটনাটি ঘটেছে বারুইপুর থানার অন্তর্গত চাম্পাহাটি হালদার পাড়ায়।

গৃহবধূর নাম সবিতা দাস(৩৪) ।গৃহবধূর বাপের বাড়ি ক্যানিং থানা অন্তর্গত তালদিতে।

গৃহবধূ পরিবার সূত্রে খবর গত চার বছর আগে বারুইপুর থানার অন্তর্গত চাম্পাহাটির হালদার পাড়ার ছেলে বীরেশ সরদার এর সঙ্গে বিবাহ হয়। বীরেশ পেশায় অটোচালক। যদিও তাদের কোন সন্তান ছিল না।

গতকাল সন্ধ্যার সময় সবিতা দাস তার স্বামী বীরেশ সরদার এর সঙ্গে চামপাটির বাজারে যায়। বাজার থেকে ফিরে আসার পর বীরেশ সবিতাকে বলে আমার পকেট থেকে টাকা চুরি করেছো। সেই নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে তুমুল অশান্তি হয়। তখন বীরেশ তার পরিবারের লোকেরা সবিতার ওপর চড়াও হয়। এই অপমান সহ্য করতে না পেরে সবিতা নিজের ঘরে ঢুকে যায়। ঘরে ঘাস মারার বিষ ছিল সেই বিষপান করে সবিতা। সেটা বীরেশ কিছুক্ষণ পরে জানতে পারে।

বীরেশ ও তার পরিবারের লোকেরা সবিতাকে নিয়ে বারুইপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে আসে সেখানে চিকিৎসক চিকিৎসা করার পর কিছুক্ষণ পরেই সবিতা মারা যায়।

বীরেশ তখন সবই তার বাপের বাড়ির লোককে ফোন করে জানায়। বাপের বাড়ির লোকরা হাসপাতালে সঙ্গে সঙ্গে ছুটে আসে।
বারুইপুর থানার খবর গেলে বারইপুর থানা পুলিশ সবিতা দেহটি নিয়ে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়। পুলিশ এ ব্যাপারে তদন্ত শুরু করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *