Breaking News

ঐতিহ‍্য ও আধুনিকতার মেল বন্ধনে নিউ নরমাল আই ফেস্ট

Post Views: website counter

 

সারা পৃথিবী সহ এই বাংলা জুড়ে করোনা আবহ।সেই আতংক পরিস্থিতিতে উৎসবের মধ্যে সপ্তমীর দিন আই-সােসাইটির উদ্যোগে মেদিনীপুরের ঐতিহ‍্যমন্ডিত বিদ‍্যাসাগর স্মৃতি মন্দিরে অনুষ্ঠিত হল “নিউ নরমাল আই ফেস্ট ২০২০। উপস্থিত অতিথি ও অন্যান্যদের চিরাচরিত রীতি অনুযায়ী গােলাপ ও চন্দনের ফোঁটায় বরণের পাশাপাশি উপহার হিসেবে মাস্ক ও স‍্যানিটাইজার তুলে দেওয়া হয়।

“রিয়েল টাইম” গ্রযুক্তির মতােই ঘড়ি ধরে ঠিক সকাল সাড়ে দশটায় উলুধ্বনি সহযােগে প্রদীপ প্রজ্জ্বলন ও চারাগাছে জল সিঞ্চন করেন উৎসবের সূচনা করেন কবি বিপ্লব মাজী, কবি তাপস মাইতি, কবি নিলয় মিত্র, কবি বিদ্যুৎ পাল, বিদ‍্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেপুটি রেজিস্ট্রার ড.অমল কুমার ভূঞ‍্যা, কবি সিদ্ধার্থ সাঁতরা সহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ। ডিজিটাল প্রযুক্তির মাধ্যমে মঞ্চের স্ক্রিনে কলকাতা থেকে উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন প্রখ‍্যাত কবি প্রভাত চৌধুরী।এভাবেই চিরাচরিত রীতি ও অভিনব ডিজিটাল সংযোগে মাধ্যমে সূচনা হয় উৎসবের।

সবাইকে স্বাগত জানিয়ে সম্পাদকীয় ভাষণে আই সােসাইটির কর্ণধার কবি সৌমিত্র রায় বলেন, করােনা অতিমারীর কারণে সারা পৃথিবীজুড়েই বদলেছে পরিস্থিতি, নতুন এই পরিস্থিতিকে মানিয়ে নেওয়ার জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ডব্লিউ এইচ ও এর নাম দিয়েছেন নিউ নরমাল । সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য, তথ্য ও যােগাযােগ প্রযুক্তি এবং কবিতার মেলবন্ধনের প্রতিষ্ঠান আই সােসাইটি তাই এবার তাদের বন্ধুদের চিন্তন বিনিময়ের বার্ষিক মিলনােৎসবের নাম রেখেছ “নিউ নরমাল আই-ফেস্ট”। অনুষ্ঠানে আই সোসাইটি শান্তি সম্মাননা প্রদান করা হয় আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন কবি বিপ্লব মাজী,জাতীয় শিক্ষক ও কবি মঙ্গলপ্রসাদ মাইতি, চলচ্চিত্রের চিত্রনাট্যকার কান্তিরজন দে, কবি অরুণ দাস, ভাস্কর ও চিত্রশিল্পী মানব বাগচি, শিক্ষক ও সমাজসেবী সুব্রত মহাপাত্র, উদ‍্যোগপতি চন্দন রায়, সাহিত্যিক অরবিন্দ মুখোপাধ্যায়,বাচিক শিল্পী ও শিক্ষা প্রশাসক কৌস্তুভ বন্দ‍্যোপাধ‍্যায়, বাচিক শিল্পী পাঞ্চালী চক্রবর্তী,বাচিক শিল্পী দেবাশিস চক্রবর্তী,আঞ্চলিক ইতিহাস ও লোকসংস্কৃতি গবেষক সন্তু জানা, কবি অরুণ দাস,শিক্ষক ও সমাজকর্মী সুদীপ কুমার খাঁড়া, চিত্রশিল্পী ও শিক্ষক নরসিংহ দাস, শিক্ষক ও সমাজসেবী মণিকাঞ্চন রায়,সঙ্গীত শিল্পী ঝুমঝুমি চক্রবর্তী, নৃত্যশিল্পী তাপস দে, সমাজসেবী রীতা বেরা, সমাজসেবী অভ্রজ্যোতি নাগ প্রমুখ বিশিষ্ট ব্যক্তিত্বকে এবং ইয়াসিন খান সম্পাদিত “নাব্যস্রোত” পত্রিকাকে ।

অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন ঝুমঝুমি চক্রবর্তী, শ্রেটান- টাটান, পারমিতা মাইতি প্রমুখ। সহশিল্পীদের সাথে নিয়ে নৃত্য পরিবেশন করেন তাপস দে (গােতি) । দিনভর এই অনুষ্ঠানে আরও ছিল বক্তৃতা, আলােচনা এবং চিরাচরিতভাবে সরাসরি ও ডিজিটাল মাধ্যমে আয়ােজিত কবি সম্মেলন। মণিকাঞ্চন রায়-এর সঞ্চালনায় “ডিজিটাল কবি সম্মেলন”-এ কবিতাপাঠ করেন নাসের হােসেন, ফটিক চৌধুরী, মধুছন্দা মিত্ৰঘােষ, অভিজিৎ দাস কর্মকারসহ ভারত ও বহির্বিশ্বের অনেক কবি। চিরাচরিতভাবে মঞ্চে কবিতাপাঠ, আলোচনা ও অনুগল্প পাঠে অংশগ্রহণ করেন শ্রীকান্ত ভট্টাচার্য, রােশেনারা খান, অরবিন্দ মুখোপাধ্যায়, অলোক বিশ্বাস,অচিন্ত্য মারিক, টোকন মান্না, অনন্যা রায়, সূর্যকান্ত জানা, সৌম্যদীপ রায়,সায়নদীপ পান্ডা, মঞ্জু হেমরম, সুদীপ কুমার খাঁড়া, জালাল মল্লিক,মৃত‍্যুঞ্জয় জানা প্রমুখ । কবিতা ক্যাম্পাস পত্রিকার সম্পাদক কবি অলোক বিশ্বাস তাঁর বিশেষ বক্তব্যে আই-সোসাইটির দীর্ঘ পথ চলায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির সাথে কবিতার মেলবন্ধনে আই-সোসাইটির অগ্রনী ভূমিকার কথা তুলে ধরেন ৷ বিশিষ্ট সাহিত্যিক ও গড়বেতা-৩ ব্লকের বিডিও অভিজিৎ চৌধুরী পাঠোন্মােচন করেন সৌমিত্র রায়-এর কবিতার বই “রিদমিক এবং রিদমিকস” এর। মােড়ক খুলে তিনি সৌমিত্র রায়ের লেখাএকটি কবিতাপাঠ করে শােনান । আই সােসাইটি শারদ সংকলনটি পাঠোন্মােচন করেন কবি বিপ্লব মাজী । প্রকাশিত হয় কবি অরুন দাস-এর দর্শনের বই “পরমচেতনার ম্যানিফেস্টো ।

মােড়ক উন্মােচন করেন কবি তাপস মাইতি। তাঁর একটি ওয়েবসাইট “জেডপোয়েমজ ডট কম” প্রকাশিত হয় । প্রকাশিত হয় কবি মৃত্যুঞ্জয় জানার কবিতার বই “আমি ঈশ্বরকে দেখেছি পাথরের মূর্তিতে নয়, লিঙ্গে” । আই সোসাইটির পক্ষে সমাপ্তি ভাষণ দেন বিশিষ্ট গবেষক ও প্রাবন্ধিক অধ‍্যপক ড.শান্তনু পান্ডা। গোটা অনুষ্ঠানটি সুচারুভাবে সঞ্চালনা করেন বিশিষ্ট বাচিক শিল্পী বৃষ্টি মুখোপাধ্যায়। গোটা অনুষ্ঠানটি সুষ্ঠু ভাবে সম্পন্ন হওয়ায় সংশ্লিষ্ট সবাইকে আই সোসাইটির পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন সৌমিত্র রায় ও অনিন্দিতা রায়।

করােনা আবহে সাংস্কৃতিক চেতনায় প্রযুক্তি ও জীবনের এই মেলবন্ধনের অনুষ্ঠিত সফল এই “নিউ নরমাল আই ফেস্ট” অনুষ্ঠান বর্তমান সময়ের পরিপ্রেক্ষিতে যথেষ্ট অর্থবহ বলে মনে করছেন বিশিষ্ট জনেরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *