Breaking News

নন্দীগ্রামে “পথ বিচ্ছিরি  সপ্তাহ” পালন

Post Views: website counter

 

রাজ্যে ৩৪ বছরের বাম শাসনের অবসান ঘটার পরে গত ২০১১ সালে রাজ্যে পরিবর্তন হওয়ার পর, তৃণমূল সরকার ক্ষমতায় আসলে, কোথাও কোনো কাজের ঢিলেমি না হয়, সেই দিক লক্ষ করে সেই মতো রাজ্যের জেলায় জেলায় প্রশাসনিক বৈঠকের মাধ্যমে কাজের গতি আনার কথা জানান মন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বিভিন্ন এলাকার রাস্তাঘাটের উন্নয়নের কর্মকাণ্ড শুরু হয় ।এর মধ্যে আবার কিছু এলাকায় ঢিলেমিও লক্ষ্যে পড়ে, এমন কিছু রাস্তা রয়েছে  যা কঙ্কাল সার ও বেহাল দুর্দশা হয়ে পড়েছে।

এই হাল ফেরাতে ও তার মোকাবিলা করতে একটি প্রকল্পের ঘোষনা করেন ” পথশ্রী প্রকল্প”।

আর এই  ” পথশ্রী প্রকল্প” কে হাতিয়ার করে সম্প্রতি পূর্ব মেদিনীপুর জেলার নন্দীগ্রামে  নরসিংহপুর এলাকায় সরকারি কাজে অখুশি হয়ে ব্যাপক বিক্ষোভ দেখায় স্থানীয়রা।

এদিন নন্দীগ্রাম ১ ব্লকের ভেকুটিয়া অঞ্চলের পঞ্চমখন্ড জালপাই ৩১নং বুথে এই “পথশ্রী প্রকল্প”কে অপব্যাখা দিয়ে হতশ্রী প্রকল্প বলে দাবি করে স্থানীয় বাসিন্দারা।এই প্রকল্প রূপায়নের প্রতিবাদে স্থানীয়দের নিয়ে বিজেপির নন্দীগ্রাম ১ পূর্ব মন্ডল এর উদ্যোগে পথ বিচ্ছিরি  সপ্তাহ পালন  করা হয়।

এই বিচ্ছিরি সপ্তাহে উদযাপনে উপস্থিত ছিলেন,বিজেপির তমলুক জেলা সাংগঠনিক জেলা সহ-সভাপতি প্রলয় পাল, নন্দীগ্রাম -১ পূর্ব মন্ডলের সভাপতির ধনঞ্জয় ঘোড়া, শংকর ধাড়া, দিলীপ দোলুই, পম্পা জানা প্রমূখ।

বিজেপির তমলুক জেলা সাংগঠনিক জেলা সহ-সভাপতি প্রলয় পাল বলেন  ২০১১সাল থেকে রাজ্যের ক্ষমতায় রয়েছে তৃণমূল সরকার । যে সরকারের পক্ষ থেকে এত উন্নয়ন হয়েছ বলে চেঁচামেচি করা হচ্ছে। ২০১১ সাল থেকে ২১ সাল হতে গেল কেন এখনো পর্যন্ত নন্দীগ্রামের বেশ কিছু এলাকার রাস্তা ঘাটের অবস্থার উন্নতি হয়নি, খানাখন্দে ভরা রাস্তা ঘাট এরকম দৈনন্দিন জীবনে নন্দীগ্রামের মানুষ কিছুতেই মানতে পারছে না।

বিজেপির তমলুক জেলা সাংগঠনিক জেলা সহ-সভাপতি প্রলয় পাল মিথ্যে প্রতিশ্রুতি দিয়ে  নন্দীগ্রামের মানুষের মন জয় করতে পারবেনা, ২০২১ এই নন্দীগ্রামের মানুষ  পরিবর্তন ঘটাবে  এমনটাই মনে করছেন ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *