Breaking News

উদ্বোধন হলো মেট্রোপলিটন বাইপাসের কাছে ” মুখরোচক সুইটস এন্ড স্ন্যাক্স” এর

Post Views: website counter

ইন্দ্রজিৎ আইচ

মুখরোচক চানাচুর এর নাম আমরা সবাই শুনেছি। তাদের নানা ধরণের স্ন্যাক্স সারা বিশ্বে সমাদৃত। তারা এই প্রথম বাজারে আনলো মুখরোচক মিষ্টি।

আজ বাইপাস ধাবার কাছে দুর্গাশ্রী ১৬৬, সেক্টর এ মেট্রোপলিটন ক্যানেল সাউথ রোড, কলকাতা ৭০০০১০৫ এই ঠিকানায় খুলে গেল ” মুখরোচক সুইটস এন্ড স্ন্যাক্স”।

এই মিষ্টির দোকান উদ্বোধন করেন ৫৭ নম্বর ওয়ার্ড এর পৌরপিতা জীবন সাহা।তিনি ফিতে কেটে এই দোকান এর শুভ সূচনা করে বলেন মুখরোচক একটা ব্যান্ড নেম, তারা এই প্রথম মিষ্টির দোকান করলো এই বাই পাশের ধারে।এর ফলে এই এলাকার অর্থনীতি চাঙ্গা হবে লক ডাউন এর পরে।

কথায় বলে বাজারে বাজার জমে।জন সংখ্যা এখানে কম,তবে বাইপাসের মানুষ এখানে যেতে আসতে মিষ্টি খাবে ও মিষ্টি কিনে নিয়ে যাবে বলে আমার বিশ্বাস।মুখরোচক এর পক্ষে প্রতীক চন্দ্র এক সাক্ষাৎকারে জানালেন এই দোকান আমাদের প্রথম একটা শাখা। ভবিষ্যতে আরো এই রকম শাখা আমাদের খুলবে এই শহরের নানা স্থানে।

নানা স্বাদের ২৫ রকম মিষ্টি এই মুহুর্তে পাওয়া যাবে এখানে। যেমন রসগোল্লা, গোলাপ জাম, শোনপাপড়ি , কাজু বরফি, লাড্ডু, নাড়ু, সন্দেশ,গুজিয়া, কড়া পাকের সন্দেশ, কালাকাঁদ, মুগ এর লাড্ডু সহ নানা ধরণের মিষ্টি।মোট ৪০ রকম মিষ্টি তাদের থাকবে পরবর্তী সময়ে। সব থেকে বড় কথা আমাদের নিজস্ব খাটাল আছে, সেখানে ১৫ টির বেশি গরু আছে। সেই গরুর দুধ থেকে যে ছানা ও গাওয়া ঘি তৈরি হয় তার থেকে এই সব মিষ্টি বানানো হয়। পাশাপাশি ঘি এ ভাজা খাস্তা কচুরি, চানাচুর,নিমকি সহ নানা ধরনের স্ন্যাক্স এখানে পাওয়া যাবে। এছাড়া রসগোল্লা, শোনপাপড়ি, গোলাপ জাম টিন এ সিল অবস্থায় পাওয়া যাবে। অল ইন্ডিয়া য় অন লাইন এ পাওয়া যাবে।

এই মুহুর্তে নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, ইউ এস এ ও মালদ্বীপ এ মুখরোচক চানাচুর পাওয়া যায়, দুবাই তে শুরু হবে। আমরা বিয়ে বাড়ির তত্ত্ব করছি। অবাঙালি দের উপহার হিসেবে সেই তত্ত্ব এ নানা রকম মিষ্টি ও স্ন্যাক্স দিয়ে সাজানো থাকবে। এই প্যাকেজ টাও এখানে পাবেন। প্রতিটা মিষ্টি ১৫ টাকা থেকে ২০ টাকা র মধ্যে। আমরা সবরকম গুণমান বজায় রাখবো মুখরোচক সুইটস ও স্ন্যাক্স এর ক্ষেত্রে। পুজোর ঠিক আগেই মুখরোচক এর এই উদ্যোগ এক কথায় অনবদ্য এই কথাই বলাযায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *