Breaking News

করোনা আবহের মধ্যে উৎসব স্পেশাল ট্রেন পরিষেবা রেলের

Post Views: website counter

 

উৎসবের মরসুম এর ঠিক আগে সাধারণের জন্য খুশির খবর নিয়ে এল ভারতীয় রেল। উৎসব উপলক্ষে ২০ অক্টোবর থেকে ৩০ নভেম্বর ৩৯২টি স্পেশাল ট্রেন চালাবে ভারতীয় রেল। করোনা আবহে দীর্ঘদিন নিয়মিত ট্রেন চলাচল বন্ধ। এই পরিস্থিতিতে উৎসবের মরসুমে স্পেশাল ট্রেন অনেকটাই স্বস্তি দেবে সাধারণ মানুষকে।

মারন ভাইরাসকরোনা সংক্রমন ঠেকাতে গত ২৫ মার্চ বন্ধ হয় রেল পরিষেবা ।পরিস্থিতি একটু থিতানোর পর গত মে মাস থেকে একটু একটু করে চালু হয়। ১২ মে প্রথম পর্যায়ে চালু হয় ১৫ জোড়া ট্রেন। এর পরে ১ জুন থেকে চলে আরও ১০০ জোড়া এবং ১ সেপ্টেম্বর থেকে ৪০ জোড়া স্পেশাল প্যাসেঞ্জার ট্রেন। ১২ সেপ্টেম্বর থেকে চালু হয় ২০ জোড়া ক্লোন ট্রেন। এছাড়াও লকডাউনে দেশের বিভিন্ন জায়গায় আটকে থাকা পরিযায়ী শ্রমিক, তীর্থযাত্রী, পর্যটক, পড়ুয়াদের ঘরে ফেরার জন্য স্পেশাল ট্রেন চালিয়েছে রেল। এ বার উৎসবের সময়েও স্পেশাল ট্রেন চালুর উদ্যোগ।

দক্ষিণ পূর্ব রেল সুত্রে জানা গেছে আগামী ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত দৈনিক ফেষ্টিভেল স্পেশাল হিসেবে। ১৬,১৭,১৮ অক্টোবর থেকে এই উৎসব স্পেশাল ট্রেন গুলো শুরু হচ্ছে।

১) হাওড়া পুরী দৈনিক স্পেশাল। আপ ডাউন মিলে ৯২ জোড়া।

২) হাওড়া দিঘা দৈনিক স্পেশাল। আপ ডাউন মিলে ৯২ জোড়া।

৩) হাওড়া রাঁচী দৈনিক স্পেশাল। আপ ডাউন মোট – ৯১ ট্রিপ।

৪) হাওড়া এর্নাকুলাম সাপ্তাহিক ভায়া কাঠপাটি। মোট-১৪ ট্রিপ। আপ- শনি-সোম। ডাউন – বুধ – মঙ্গলবার।

৫) হাওড়া-পুদুচেরী সাপ্তাহিক। মোট-১৪ ট্রিপ। আপ-রবি ও বুধ। ডাউন- মঙ্গল আর বুধ।

৬) হাওড়া টাটা নগর দৈনিক স্পেশাল। আপ ডাউন মিলে ৯২ জোড়া।

এই খবর পাওয়ার পরেই খুশীর আমেজ পূর্ব মেদিনীপুর জেলার সৈকত শহর গুলিতে। করোনা আবহের জেরে অন্যান্য ক্ষেত্রের মত পর্যটন শিল্পেও বড় আঘাত নেমেছে পরিস্থিতি ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হওয়ার দিকে এগোতেই দিঘা- মান্দারমনি -তাজপুর -শংকরপুর প্রমুখ সৈকত শহরে কম বেশী পর্যটক আসা যাওয়া করছেন।তবে ট্রেন পরিষেবা না থাকায় পর্যটকেরা সে ভাবে সৈকত শহরমুখো হয়নি।রেলের ঘোষনার পরে সেই পরিস্থিতির বদল হবে বলে বিশ্বাস স্থানীয় ব্যবসায়ীদের

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *