Breaking News

দফায় দফায় আলোচনার পরেও মিটলোনা অটো-টোটোর যানজট সমস্যা

Post Views: website counter

 

প্রদীপ কুমার সিংহ

দক্ষিণ ২৪ পরগনা বারুইপুরের নাগরিকেরা রাস্তায় বেরোলেই যানজটের ফলে এক নরক যন্ত্রণা ভোগ করতে হয় । সমস্যার দ্রুত সমাধান হবে বলে বারবার আশ্বাস দিয়েছে প্রশাসন ।

একাধিক বার দেওয়া আশ্বাস পুরনের জন্যে ফের উদ্যোগ নেওয়া হলেও অধরা রইলো বারুইপুরে অটো-টোটোর যানজট নিয়ন্ত্রন। কোন জট খুললো না বারুইপুর মহকুমা শাসকের ডাকা প্রশাসনিক বৈঠকে।

শুক্রবার দুপুরে বারুইপুরের জেলা পরিষদ প্রশিক্ষন কেন্দ্রে মহকুমা শাসক দেবারতি সরকার এক বৈঠক ডাকেন। ছিলেন বিধানসভার অধ্যক্ষ তথা এলাকার বিধায়ক বিমান বন্দোপাধ্যায়,পুরসভার প্রশাসক শক্তি রায় চৌধুরি, গৌতম দাস,বারুইপুর ব্লকের আই এন টি টি ইউ সি সভাপতি বিভাস সরদার, বারুইপুর জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইন্দ্রজিত বসু,ডি এস পি ট্রাফিক, সৌম্য শান্ত পাহাড়ি, এস ডি পি ও অভিষেক মজুমদার বারুইপুর থানা আই সি দেব কুমার রায় সহ অন্যরা।
ডাকা হয়েছিল অটো ইউনিয়নের নেতাদেরও। প্রসঙ্গত,গত বছরের ৫ ডিসেম্বর ও ফেব্রুয়ারি মাসে এক বৈঠক হয়েছিল। সেখানে কিছু সিদ্ধান্তর নেওয়া হলেও তা চালু হয়নি মহামারী করোনা ভাইরাস সংক্রমণের জন্য।

বারুইপুর থানার কাছ থেকে রেলগেট পর্যন্ত ও রেলগেট পেরিয়ে রাস্তায়,গোচরন মোড়ে নিত্য যানজটে মানুষ ওষ্ঠাগত। প্রশাসনের কর্তারা বারংবার নিয়ন্ত্রনের চেষ্টা করলেও তা সম্ভব হয়নি।

এদিনের বৈঠকে অটোর দৌরাত্ম্য নিয়ে সরব হয়ে অধ্যক্ষ বলেন, সিদ্ধান্ত হলে তা গৃহীত করতে হবে। না হলে মানুষকে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। অটোচালকরা যে যার মত ভাড়া নিচ্ছে। এই ভাড়া নেওয়া যাবে না। অটো ইউনিয়নকে ভাড়ার নির্দিষ্ট তালিকা করে তা জনসমক্ষে আনতে হবে। অটোতে টাঙ্গিয়ে দিতে হবে।

যানজট কোনভাবেই সৃষ্টি করা যাবে না। পাশাপাশি প্রশাসক মণ্ডলীর সদস্য গৌতম দাস অভিযোগ করে বলেন,পদ্মপুকুর থেকে রেলগেট আসতেই এক ঘন্টা লেগে যাচ্ছে যানজটের কবলে পড়ে। রেলগেট সংলগ্ন এলাকায় নতুন অটো স্ট্যান্ড গজিয়ে উঠেছে। টোটো গলিতে চলার কথা বলা হলেও তা চালু হয়নি। একই কথা বলেন পুরসভার প্রশাসক শক্তি রায় চৌধুরী।

তিনি বৈঠকে বলেন,গজিয়ে ওঠা অটো স্ট্যান্ড বারংবার তুলে দেবার কথা বলা হলেও তা কার্যকর হয়নি। যদিও অটো ইউনিয়নের নেতা বিভাস সরদার বলেন,যানজট শুধু অটো –টোটোর কারনে হয়না। পদ্মপুকুর থেকে রেলগেট যারা মোটর বাইকে করে বাজার করতে আসে রাস্তার পাশে বাইক রেখে দিচ্ছে। এছাড়া রাস্তার পাশে ইমারতি দ্রব্য রেখে দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন,বারুইপুর থানার মধ্যে ২৬০০ অটো থাকলেও চলছে প্রায় ৮ হাজার।
জীবনতলা,ভাঙ্গর,জয়নগর, ক্যানিং থেকে সকালে বারুইপুরে অটো চলে আসছে। এরাই বেশি ভাড়া নিচ্ছে। তা বন্ধ করতে হবে।

বারুইপুরের অটো ইউনিয়ন কোন ভাড়া বাড়ায়নি। পুরাতন রেটেই চলছে। যদিও বৈঠকে নেতারা নিয়ন্ত্রনে সমাধানের ব্যাপারে কোন সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি। বারুইপুর জেলা পুলিশ কর্তাদের বলা হয়েছে আবার বৈঠক ডাকতে,ক্যানিং,সোনারপুর অটো ইউনিয়ন কেও ডাকতে বলা হয়েছে।

এদিন,বারুইপুর ডি এস পি ট্রাফিক অধ্যক্ষকে বলেন,রাস্তার পাশে দোকানের সামনে থেকে বাইক সরাতে উদ্যগ নেওয়া হবে কয়েকদিনের মধ্যেই। এদিন পরে অধ্যক্ষ বিমান বন্দোপাধ্যায় বলেন,সামনের পুজা আসছে তাই যানজটের সমস্যা নিয়ন্ত্রনে বৈঠক হল। অটোর সংখ্যা ও জনসংখ্যা বেড়েছে তাই সমস্যা হচ্ছে। আমরা চেষ্টা করছি সমাধানের।

পাশাপাশি,বারুইপুরের পূর্ত দপ্তরের অধীন সব রাস্তা ৭ দিনের মধ্যে মেরামতের জন্য নির্দেশ দেন বিধায়ক বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *