Breaking News

রাহুল,রাজস্থানে এক মাস ধরে গন ধর্ষনের শিকার নির্যাতিতার বাড়ি যাবেন ?

Post Views: website counter

 

আমি এক মাস ধরে গন ধর্ষনের শিকার,পুলিশে অভিযোগ জানালেও তারা গ্রেফতার হয়নি।আপনি আমার সাথে দেখা করতে আসবেন না? নাকি অভিযুক্তরা কংগ্রেস কর্মী আর এই রাজ্যে কংগ্রেস সরকার আছে বলে সে কথা ভাবেন নি? এবার কংগ্রেসের প্রাক্তন সর্ব ভারতীয় সভাপতি সাংসদ রাহুল গান্ধীকে প্রশ্ন এক নির্যাতিতার!

ধর্ষিতার এই প্রশ্ন সামনে আসার পরেই রাজস্থানের রাজনীতিতে আলোড়ন পড়েছে।দাবি উঠেছে এই নির্যাতিতার সাথে দেখা করে তাঁকে ন্যায় দেওয়ার ,বিচার দেওয়ার অঙ্গীকার করুন রাহুল গান্ধী ।

রাজস্থান।মরু রাজ্য কংগ্রেসের দখলে।আর এই রাজ্যেরই বারান জেলার সীসবালি গ্রামের এক মহিলা টানা এক মাস ধরে গনধর্ষনের শিকার।সব জেনেও এলাকার প্রশাসন ও রাজনৈতিক দল গুলি নির্বিকার বলে অভিযোগ।

ঘটনার বিবরন গত ১ জুলাই দুপুরে এলাকার দুই যুবক এই নির্যাতিতার বাড়িতে এসে তাকে তুলে নিয়ে যায়।অভিযোগ এই মহিলাকে এক মাসের বেশী সময় ধরে একটা বাড়িতে আটকে রেখে দুই জন মিলে লাগাতার ধর্ষন করেছে।মহিলার অভিযোগ বাধা দিতে গেলেই চলতো মারধর।এদের চোখে ধুলো দিয়ে আগষ্ট মাসের প্রথম সপ্তাহে গোপন স্থান থেকে কোন ভাবে পালিয়ে আসে এই যুবতী।পরে ৭ আগষ্ট স্থানীয় সীসবালি থানায় অভিযোগ দায়ের করে ।

নিউজ নেশন নামের এক সংবাদ মাধ্যমের খবর অনুযায়ী, উত্তর প্রদেশের হাথরসের ঘটনা সামনে আসার পরেই বারান জেলার সীসবালি গ্রামের এই নির্যাতিতা রাহুল গান্ধীকে প্রশ্ন করে বলেছেন, ‘রাহুল গান্ধী আপনি বারানে কেন আসছেন না?

প্রশ্ন করেছেন রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলটকেও।প্রশ্ন করে বলেছেন অন্য রাজ্যে কিছু ঘটলে আপনি সেখানে চলে যান, কিন্তু নিজের রাজ্যে এরকম ঘটনা ঘটে গিয়েছে অথচ আপনি একবারও খোঁজ নেন নি ,কেন? এই নির্যাতিতা বলেন আমার মধ্যে আর হাথরসের মেয়েটির মধ্যে কি পার্থক্য আছে? অন্যায় তো আমার সাথেও হয়েছে। আমিও হাথরসের মেয়েটির মতই। আমি চাই আমার সাথেও ন্যায় হোক। রাহুল গান্ধী আর প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বারানে আসুক। আমার সাথে যা হয়েছে শুনুক, আর আমাকে ন্যায় পাইয়ে দিক”

সীসবালি থানা সুত্রে জানা গেছে এই মহিলাকে জুলাই মাসে অপহরন করে টানা কয়েকদিন ধরে ধর্ষন করা হয় ।থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে।তবে ৩ অক্টোবর অবধি কেউ গ্রেফতার হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *