Breaking News

লগ্নির শুভলগ্ন এল ইস্টবেঙ্গলে, নবান্নে ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

Post Views: website counter

 

ইস্টবেঙ্গলে নতুন লগ্নিকারীর ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। লাল-হলুদ ক্লাবের নতুন লগ্নিকারীর নাম শ্রী সিমেন্ট।

নবান্নে সাংবাদিক সম্মেলনে শ্রী সিমেন্টের কর্তা ও ইস্টবেঙ্গল কর্তাদের সঙ্গে নিয়ে এই ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী। লগ্নিকারী চলে আসায় আইএসএলে খেলার সম্ভাবনা যে উজ্জ্বল হল ইস্টবেঙ্গলের, সেটাও পরিষ্কার হল সাংবাদিক সম্মেলনে। মুখ্যমন্ত্রী বললেন, “বাংলার ফুটবল থেকে অনিশ্চয়তা দূর হল। বাংলা ছাড়া ফুটবল সম্পূর্ণ হবে না। বাংলা সব কিছুতে ভারতকে পথ দেখায়। করোনার এই সময়ে যে ভাবে ইস্টবেঙ্গলের পাশে দাঁড়িয়েছে শ্রী সিমেন্ট, সেটা অনেক বড় কথা।”

মোহনবাগান যেদিন এটিকের সঙ্গে যুক্ত হয়েছিল, তখন থেকেই ইস্টবেঙ্গলের জন্য লগ্নিকারী আনার চেষ্টা শুরু করে দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সাত মাস পর সেই প্রচেষ্টা অবশেষে সফল। আর তার জন্য মুখ্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদ দিলেন লাল-হলুদের সচিব কল্যাণ মজুমদার।

কোয়েসের সঙ্গে চুক্তিতে দাঁড়ি পড়ার পর বার বার সমর্থকরা প্রশ্ন তুলেছিলেন ইস্টবেঙ্গলের আইএসএলে খেলার প্রসঙ্গে। সেই পরিস্থিতি থেকে মুখ্যমন্ত্রীর উদ্যোগে ঘুরে দাঁড়ানো সম্ভব হল। ক্লাবের তরফে বলা হচ্ছে, হারা ম্যাচ জিতিয়ে আনলেন মুখ্যমন্ত্রী। লগ্নিকারী সংস্থার তরফে বলা হল, আইএসএলে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্যই নামবে ইস্টবেঙ্গল।

********

ক্লাবটি তিনটি জাতীয় ফুটবল লীগ শিরোপা (এখন আই-লিগ নামে পরিচিত), আটটি ফেডারেশন কাপ, তিনটি ভারতীয় সুপার কাপ এবং অন্যান্য ট্রফি জিতেছে।

ক্লাবটি মূলত অভিবাসী জনগোষ্ঠীর দ্বারা সমর্থিত (বাঙ্গাল), যারা ১৯০৫ ও ১৯৪৭ এর বাংলা বিভাগের সময় বাসা ছেড়ে যেতে বাধ্য হয়েছিল।

১৯৯৮ সালে ইউনাইটেড ব্রিউয়ারিস গ্রুপ ক্লাবের ৫০% মালিকানা লাভ করে এবং তাদের কিংফিশার বিয়ার বিপননের জন্য ক্লাবের নাম পরিবর্তন করে কিংফিশার ইস্টবেঙ্গল ক্লাব নাম রাখে।

বর্তমানে ফুটবল দলের মালিকানা রয়েছে কোয়েস কর্পের কাছে। ২০১৭ সালে ক্লাবের ৭০% মালিকানা লাভ করে এবং কোয়েস ইস্টবেঙ্গল এফ সি প্রাইভেট লমিটেড নামক যৌথ উদ্যোগ তইরি করে। স্কোয়াড তৈরি ও পরিচালনার পুরো দায় এখন কোয়েসের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *