Breaking News

ঘটকালীর টাকাকে কেন্দ্র করে ঘটকের হামলা

Post Views: website counter

 

পিয়া গুপ্তা চক্রবর্তী

ঘটকালীর টাকাকে কেন্দ্র করে ঘটকের হামলায় ইসলামপুর থানার রাজুবস্তি এলাকায় উত্তেজনা ছড়ালো। ঘটনার জেরে গুলি বোমাবাজিতে ইসলামপুর থানার চিটকুন মোড় বাজার এলাকা উত্তপ্ত হয়ে ওঠে বলে অভিযোগ। ঘটনায় গুরুতর জখম ছেলে পক্ষের পরিবারের তরফে ইসলামপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করলেও পুলিশের বিরুদ্ধে নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

এদিকে তৃনমুল নেতার সশস্ত্র হামলার প্রতিবাদে পুলিশী নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগে সরব খোদ তৃণমুল প্রধান। যদিও ঘটনার পেছনে কোনও রাজনৈতিক কারন নেই বলে গোবিন্দপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃনমুল প্রধানের দাবী। ইসলামপুর থানার গোবিন্দপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের রাজুবস্তি এলাকার বাসিন্দা মহম্মদ আলমু তাঁর ছেলে সমীরুল আলমের বিয়ের জন্য ঘটক আমিরুলকে জানিয়েছিল।

আমিরুল বিবাহের জন্য মেয়ে দেখেছিল তবে ঘটকালীর ৩৫ হাজার টাকা দাবী করলে মহম্মদ আলমু বিয়েতে অরাজি হয়। আলমু গরীব মানুষ এতো টাকা দিতে পারবে না বলে বিয়েই হবে না বলে সাফ জানিয়ে দেন মহম্মদ আলমু। এরপরই আমিরুল ও মাটিকুন্ডা-২ গ্রাম পঞ্চায়েতের ঝলঝলির বাসিন্দা তথা তৃনমুল নেতা কাশিম দলবল নিয়ে মহম্মদ আলমুকে চিটকুন মোড় বাজার এলাকায় আটকে ৫০ হাজার টাকা দাবী করে আলমুকে বেধড়ক মারধর করে বলে অভিযোগ। কাশিমের স্ত্রী ববিতা বিবি মাটিকুন্ডা-২ গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃনমুল সদস্যা।

ঘটনার খবর পেয়ে আলমু’র তিন ছেলে তাঁকে বাঁচাতে আসলে আমিরুল ও কাশিম সহ তাঁদের লোকজন ব্যাপক বোমাবাজি ও গুলি চালায় বলে অভিযোগ। ঘটনায় আলমু সহ প্রায় ১০ জন জখম হয় বলে জানা গিয়েছে। জখমদের মধ্যে আলমু’র ছেলে সমীর আলম গুরুতর জখম হয়ে পড়ে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে ইসলামপুরের এক বেসরকারী নার্সিং হোমে ভর্তি করা হয়।

তবে টাকার অভাবে সমীর আলমকে নার্সিং হোম থেকে ছুটি করিয়ে আনা হয়। বর্তমানে সে বাড়িতেই মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়াচ্ছে। অন্যদিকে গোবিন্দপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধানকেও আলমু’র পাশে দাঁড়ানোর জন্য ফোনে মেরে ফেলার হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে প্রধান মহম্মদ রইসুদ্দিনের অভিযোগ।

এই পরিস্থিতিতে রাজুবস্তির বাসিন্দারা আতঙ্কিত পাশাপাশি আতঙ্কের জেরে প্রায় বন্ধ চিটকুন বাজার। এবিষয়ে পুলিশের কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *