Breaking News

করোনা পরিস্থিতিতে প্রাথমিক শিক্ষা সংক্রান্ত দাবি

Post Views: website counter

 

বঙ্গীয় প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির পক্ষ থেকে করোনা পরিস্থিতিতে প্রাথমিক শিক্ষাক্ষেত্রের ৬টি গুরুত্বপূর্ণ দাবিতে সারা বাংলা দাবি দিবস পালন করা হয়।

প্রথাগত মিড-ডে মিলের পরিবর্তে পড়ুয়াদের প্রতিদিন দু’বেলার হিসেবে চাল,আলু সহ পুষ্টিকর খাদ্য সামগ্রী সরবরাহ, মিড-ডে মিল কর্মীদের খাদ্য সামগ্রী ও বিশেষ ভাতা প্রদান, উপযুক্তমানের ‘মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক’ প্রণয়ন ও কপিগুলো বিলি, স্কুল খোলার আগে স্যানিটাইজেশন ও স্বাস্থ্য সুরক্ষার বন্দোবস্ত, প্রথম শ্রেণি থেকে পাশফেল চালু এবং মদ বিক্রির সার্কুলার প্রত্যাহার করবার দাবি সম্বলিত স্মারকলিপি মুখ্যমন্ত্রী,শিক্ষামন্ত্রীর পাশাপাশি প্রত্যেক জেলা প্রাথমিক বিদ্যালয় সংসদের চেয়ারম্যান, ডি.আই সহ সমস্ত চক্রের এস.আই কাছে পেশ করা হয়।

উল্লেখ্য , লকডাউনে জনসাধারণ চরম সঙ্কটে। নিরন্ন মানুষের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে এবং আগামীদিনে আরও বাড়বে বলে অভিজ্ঞদের মত। বর্তমানে সরকারি বিদ্যালয়ে মূলত আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়া পরিবারের ছেলে-মেয়েরাই আসে। ইতিপূর্বে তাদের দুবারে ৫কেজি করে চাল ও আলু দেওয়া হয়েছে। এই শিক্ষক সংগঠনের দাবি এই প্রাপ্তি প্রয়োজনের তুলনায় অতি নগণ্য। এমনকি বরাদ্দকৃত অর্থের পুরোটাও ব্যয় করা হয়নি। পুষ্টি তো দূরস্থ। পাশাপাশি মিড-ডে মিল কর্মীরাও অসহায়ভাবে দিন কাটাচ্ছে।

এক প্রেস বিবৃতিতে সমিতির সাধারণ সম্পাদক আনন্দ হাণ্ডা বলেন করোনা অতিমারী চলাকালীন প্রথাগত মিড-ডে মিলের পরিবর্তে ছাত্র-ছাত্রীদের খাদ্যের দায়িত্ব পুরোপুরিভাবে সরকারকে নিতে হবে। নাহলে বহু ছাত্রই স্কুলছুট হতে বাধ্য হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *