Breaking News

মেয়েদের মধ্যে রাজ্যে প্রথম দেবস্মিতাকে সম্বর্ধনা জ্ঞাপন মামুদের

Post Views: website counter

 

বনমালীচট্টা হাইস্কুলের ভূগোলের কৃতি শিক্ষক দেবাশীষ মহাপাত্র ও ভবানীচক হাইস্কুলের ভূগোলের শিক্ষিকা স্বপ্না মহাপাত্র দম্পতির মেয়ে দেবস্মিতা মহাপাত্র এবারের মাধ্যমিক পরীক্ষায় ৬৯০ নম্বর পেয়ে রাজ্যে তৃতীয় ও মেয়েদের মধ্যে প্রথমা হয়েছে। ভবানীচক হাইস্কুলের ছাত্রী দেবস্মিতা মহাপাত্রকে সম্বর্ধিত করলেন বনমালীচট্টা হাইস্কুলের প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক মামুদ হোসেন।
দেবস্মিতা ভবানীচক হাই স্কুলের ছাত্রী। মাধ্যমিকে তার প্রাপ্ত নম্বর ৬৯০। গোটা পশ্চিমবঙ্গের মধ্যে দেবস্মিতা মেয়েদের মধ্যে প্রথম স্থান অর্জন করেছে।

দিনে সাত থেকে আট ঘণ্টা পড়াশোনা করতো দেবস্মিতা। সবথেকে বেশি আগ্রহ ছিল জীবন বিজ্ঞানের প্রতি। সাতটি বিষয়ের মধ্যে প্রত্যেকটিতে গৃহশিক্ষক থাকলেও ভূগোল পড়াতে নিজের বাবা-মা। নিজের এত বড় সাফল্যের পেছনে বাবা- মা- দাদা সহ শিক্ষক-শিক্ষিকাদের ও বিশাল বড় অবদান রয়েছে বলে জানিয়েছে সে। দেবস্মিতা মায়ের স্কুল ভবানীচক হাই স্কুল থেকে মাধ্যমিক পাস করলেও আগামী দিনে নিজের সুবিধার জন্য অন্য স্কুলে ভর্তি হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ভবানীচক হাই স্কুলের ছাত্রীর এত বড় সাফল্যে এখন খুশি স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকারাও।

মাধ্যমিকে তৃতীয় স্থান অধিকারী দেবস্মিতা বলেন, “মাধ‍্যমিকে এত বড় সাফল্য পাবো আমি ভাবতেই পারিনি। আগামী দিনে বিজ্ঞান বিভাগে পড়ার ইচ্ছে রয়েছে। আমার সাফল্যের পেছনে বাবা- মা- দাদা সহ সমস্ত শিক্ষক-শিক্ষিকাদের বিশাল বড় অবদান রয়েছে। অবসর সময়ে গল্পের বই পড়তে খুব ভালো লাগে”

দেবস্মিতার মা স্কুলশিক্ষিকা স্বপ্না মহাপাত্র জানান, “মেয়ের এই সাফল্যে খুবই ভালো লাগছে। যেদিন যখন মনে হতো বই নিয়ে পড়তে বসতো দেবস্মিতা। রাত্রি ১২ টার বেশি দেবস্মিতা পড়তো না

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *