Breaking News

দু:স্থ মেধাবী ছাত্রের উচ্চ শিক্ষার আর্থিক দায়ভার নিলেন ইদ্রিশ

Post Views: website counter

 

নিজের দেওয়া প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে ছুটে গেলেন বিধায়ক ইদ্রিস আলী । বাউরিয়া থানা এলাকার খাজুরির বাসিন্দা মেধাবী রসায়নের ছাত্র সাহিন সাগর মল্লিকের দিকে আর্থিক  সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিলেন উলুবেড়িয়া পূর্ব কেন্দ্রের বিধায়ক ইদ্রিস আলী।

মঙ্গলবার দুপুরে  তার বাড়িতে পৌঁছে যান তিনি। উল্লেখ্য  মুম্বইয়ের আই আই টি থেকে এম এস সি করতে সাহিনের যা খরচ হবে তার সবটাই বিধায়ক ইদ্রিস আলী বহন করবেন  বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। গত ১৯ মার্চ  বিধায়ক ইদ্রিস আলী ফোন মারফত সাহিন কে আশ্বাস দিয়েছিলেন , তার উচ্চ শিক্ষা গ্রহণে কোনো অসুবিধা হবে না। সেই কথাই রাখলেন তিনি।  উল্লেখ্য বাউরিয়া থানা এলাকার খাজুরি উত্তর পাড়ার বাসিন্দা সাহিন সাগর মল্লিক সর্বভারতীয় অ্যাডমিশন টেস্টে  (আই আই টি জ্যাম) রসায়নে প্রথম স্হান অধিকার করে সবাইকে তাক লাগিয়ে দেয়।

সাধারন নিন্মবিত্ত পরিবারের সন্তান সাহিনের বাবা জরির কাজ করেন। আর্থিক অস্বচ্ছলতা বাড়ির সর্বত্র বিরাজ করছে। সেই আর্থিক প্রতিবন্ধকতার সঙ্গে লড়াই করে সর্বভারতীয় অ্যাডমিশন টেস্টে প্রথম হয়ে সবার নজর কাড়ে সাহিন। আর্থিক দূরাবস্থা এই মেধাবীর উচ্চ শিক্ষা গ্রহনের পথে অন্তরায় হয়ে উঠতে পারে এই খবরটি গত মার্চ মাসে একটি দৈনিক প্রত্রিকায় প্রকাশিত হয়। সাহিনের বিষয়টি সংবাদপত্র মারফত জানতে পারেন বিধায়ক ইদ্রিস আলী । তার নিজের বিধানসভা কেন্দ্রের বাসিন্দা সাহিন। এরপর তার ফোন মারফত সাহিনের সঙ্গে যোগাযোগ করেন বিধায়ক । তখনই প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন অর্থ কোনো ভাবেই সাহিনের উচ্চশিক্ষা গ্রহণে বাধা হয়ে দাঁড়াবে না।

সাহিন বর্তমানে হাওড়ার নরসিংহ দত্ত কলেজে স্নাতক স্তরে পড়াশোনা করছে। সামনেই তার পার্ট থ্রি পরীক্ষা । পরীক্ষার পর সাহিনের ইচ্ছা মুম্বাইয়ের আই আই টি থেকে মাস্টার্স ডিগ্রি করা। সেখানেই পড়াশোনা করতে প্রায় ২ লক্ষ ১০ হাজার টাকার খরচ। এত টাকা কোথা থেকে আসবে , যা বেশ ভাবিয়ে তুলেছিল সাহিন ও তার পরিবার কে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!